ঘরের লোন এর EMI জমা না করতে পারলে কি করবেন? উপায় জানুন

What to do if You Can’t Pay your Home Loan EMI in Bengali: ঘরের লোন এর EMI না দিতে পারলে কি করবেন? এর জন্য উপায় ও পদ্ধতি কি? | আসুন জেনে নিন আপনি যদি ঘরের লোন এর ই এম আই (EMI) জমা না করতে পারেন তাহলে কি করবেন?

ঘরের স্বপ্ন সবারই থাকে। তাই অনেকেই কম সময়ের মধ্যে নিজের একটি স্বপ্নের বাড়ি তৈরি করার জন্য ব্যাংক থেকে হোম লোন নিয়ে থাকেন। যা কিনা প্রতি মাসে অল্প কিছু টাকা ই এম আই বাবদ কেটে নেওয়া হয় ব্যাংক একাউন্ট থেকে।

একটা সময় সীমা পর্যন্ত সেটা নির্ধারিত থাকে, সেই সময় সীমা পর্যন্ত প্রতি মাসে এই ই এম আই ব্যাংক থেকে কাটা হয় হোম লোনের জন্য। তবে দেখা যায় অনেক সময় বেশ কিছু সমস্যার জন্য এই ই এম আই জমা করা হয়ে ওঠে না। তখন অনেকেই চিন্তিত হয়ে পড়েন এবং কী করবেন ভেবে পান না।

একটা ব্যক্তি জীবনে একটি ঘর কেনা বা তৈরি করা সারা জীবনের সবথেকে বেশি দামি ইনভেস্টমেন্ট বলা যেতে পারে। কেননা এতে বেশ ভালো এমাউন্টের টাকা খরচ হয়ে যায়। সেই কারণে হোম লোনের প্রয়োজনীয়তা এ ক্ষেত্রে প্রযোজ্য।

ঘরের লোন এর EMI জমা না করতে পারলে কি করবেন? উপায় জানুন
ঘরের লোন এর EMI জমা না করতে পারলে কি করবেন? উপায় জানুন

আর অনেকেই এই হোম লোনের মধ্যে দিয়ে নিজেদের ঘর তৈরি করেছেন। একবার যখন কোন ব্যাংক কোন ব্যক্তিকে হোম লোন দিয়ে থাকে, সেই ব্যাংক কিন্তু সেই ব্যক্তির কাছে আশা রাখে যে, সেই ব্যক্তি লোন সময় মত পরিশোধ করে দেবেন।

বলতে গেলে প্রতিমাসে ই এম আই দিয়ে পরিশোধ করে দেবেন। কোনরকম অন্যথা হবেনা। কিন্তু আপনি যদি ই এম আই এর ভর পাই করার জন্য অসমর্থ হয়ে পড়েন, তাহলে বিষয়টি বেশ জটিল হয়ে ওঠে।

তো চলুন তাহলে আজকে জেনে নেওয়া যাক, এমন পরিস্থিতিতে আপনি কি করতে পারেন?

আপনার এই ই এম আই (EMI) ছেড়ে দিতে হবে: 

যদি আপনি একটি অথবা দুটি ই এম আই এর ভর পাই প্রতি মাসে না করতে পারেন, তখন তো ব্যাংক আপনাকে এই লোনের জন্য কিছু বলবে না। কিন্তু যদি আপনার তিন মাসের বেশি অথবা তিন মাস পর্যন্ত লোন এর ই এম আই এর ভরপাই যদি না করেন, তাহলে কিন্তু ব্যাংক আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করবে। তার সাথে সাথে আপনাকে ই এম আই জমা করার জন্য একটি রিমাইন্ডার ও পাঠাতে পারে।

তার পরেও যদি আপনি কোন রকম প্রতিক্রিয়া না করে থাকেন, তাহলে এমন পরিস্থিতিতে ব্যাংক আপনাকে একটি আইনি নোটিশ পাঠাবে, আর তার সাথে সাথে আপনাকে লোন ডিফল্টার ও হিসাবে ঘোষিত করা হবে।

যদি আপনাকে লোন ডিফল্টার ঘোষিত করা হয়ে থাকে, তাহলে কি হবে?

একবার যখন আপনি লোন ডিফল্টার হয়ে যাবেন তাহলে তখন ব্যাংক আপনার সম্পত্তি কে দখল করার প্রক্রিয়া শুরু করে দেবে। তার সাথে সাথে ব্যাংক লোন এর অ্যামাউন্ট আদায় করার জন্য আপনার সম্পত্তিকে নিলাম এও তুলতে পারে। ব্যাংক সাধারণত আপনার ঘরের নিলামের আগে ছয় মাসের সময় দিয়ে থাকে।

এই ছয় মাসের মধ্যে আপনি যে কোন সময় ব্যাংকের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। আর এই পরিস্থিতি সামাল দিতে পারেন, বলতে গেলে আবার আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনি। 

লোন ডিফল্টার ঘোষিত হয়ে যাওয়ার পর কি করবেন?

যদি কোন কারণে বা কিছু অসুবিধার কারণে আপনাকে লোন ডিফল্টার করা হয় তাহলে কি করবেন? কিভাবে নিজেকে লোন ডিফল্টার থেকে মুক্ত করবেন? চলুন কিছু পয়েন্টের মাধ্যমে এই বিষয় বুঝে নেওয়া যাক।

১) আপনি ব্যাংক আধিকারিক এর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন:

আপনার সম্পত্তি যখন নিলামে ওঠার মতো পরিস্থিতি তৈরি হবে, তখন কিন্তু এই পরিস্থিতি ভালো করার জন্য আপনি চেষ্টা করতেই পারেন। সে ক্ষেত্রে ব্যাংকের আধিকারিক এর সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

তার সাথে দেখা করে সমস্ত রকম পরিস্থিতি স্পষ্ট ভাষায় ব্যক্ত করতে পারেন, যে আপনি কোন কোন কারণের জন্য এই EMI  ভরতে পারেন নি। সেটা হতে পারে আপনার স্বাস্থ্য সম্বন্ধিত কোন সমস্যা বা আরও অন্যান্য ব্যক্তিগত কোনো সমস্যা। সেটা আধিকারিকের সামনে সরাসরি বলতে পারেন।

আবার যদি আপনার মনে হয় যে, ব্যাংকের ভর পাই আগামী তিন-চার মাসের মধ্যে আপনি করতে পারবেন, তাহলে ব্যাংক আপনাকে কিছু মাসের জন্য এই নিলাম স্থগিত করতে পারে।

২) লোনের পুনর্গঠন : 

যখন আপনার সম্পত্তি সংকটের মুখে পড়বে তখন আপনার সুদের হারও অনেকখানি বৃদ্ধি পেয়ে যেতে পারে, তার সাথে সাথে আপনার ই এম আই শোধ করার জন্য অনেক রকম কঠিন পরিস্থিতি তৈরি হতে পারে। তখন আপনি ব্যাংকে আপনার হোম লোনের পুনর্গঠন এর অনুরোধ ও করতে পারেন।

সে ক্ষেত্রে ব্যাংক আপনার লোন পরিশোধের সময়সীমা বাড়াতে পারে। যার ফলে আপনার প্রতি মাসের ই এম আই অনেক কমে যেতে পারে। যেটা আপনার জন্য অনেক খানি সহজ হবে।

৩) লোনের পুনঃঅর্থায়ন করতে পারেন: 

যখন এমন পরিস্থিতি তৈরি হবে, যেখানে ব্যাংকের লোন এর ই এম আই আপনি পরিশোধ করতে পারছেন না, সেখানে অন্য কোন ব্যাংক আপনাকে লোন প্রদান করছে, সে ক্ষেত্রে আপনি সেই অন্য ব্যাংক থেকে লোন নিয়ে এই ব্যাংকের লোন অনায়াসেই পরিশোধ করতে পারেন।

তখন আপনি লোন এর পুনঃঅর্থায়ন করার জন্য চিন্তা করতে পারেন। তাছাড়া এর জন্য আপনাকে প্রসেসিং চার্জ আর অন্য ট্যাক্স এর ভর পাই করতে হতে পারে।

৪) আপনার অন্য কোন ইনভেস্টমেন্ট এর সমাপ্তি করা: 

সবথেকে শেষ পদক্ষেপ হলো যার সহায়তা আপনি নিতেই পারেন। যদি উপযুক্ত বিকল্প কাজ না করে থাকে, তাহলে আপনার বর্তমান যে ইনভেস্টমেন্ট রয়েছে, সেগুলি বন্ধ করে দিতে পারেন।

যেমন ধরুন মিউচুয়াল ফান্ড এর ই এম আই এর ভর পাই যেটা মাসে মাসে করেন, সেটা বন্ধ করতে পারেন। সেই টাকাটা এই ব্যাংক লোনের জন্য ব্যবহার করতে পারেন। যার ফলে আপনার এই ই এম আই অনেকটা কম হবে, আর অনেকটাই চিন্তা মুক্ত হতে পারবেন।

যখন হোম লোনের ই এম আই পরিশোধ হয়ে যাবে, তারপর আপনি আবার মিউচুয়াল ফান্ড অথবা অন্য কোন ইনভেস্টমেন্ট এর কথা ভাবতে পারেন।

হোম লোন এর ক্ষেত্রে এমন পরিস্থিতি প্রায় মানুষের সাথেই ঘটে থাকে। তাই অযথা হয়রানির শিকার না হয়ে এই সমস্ত পদক্ষেপ গুলি অনায়াসেই গ্রহণ করতে পারেন। যার ফলে খুবই সহজ ভাবে, ঠান্ডা মাথায়, এই পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসতে পারবেন অনায়াসেই।

তাই উপরে দেওয়া ওই সমস্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করুন, তার সাথে সাথে আপনাকে যেমন ভাবে ব্যাংক নির্দেশ দিয়ে থাকে, সেটা পালন করার চেষ্টা করুন, তাহলে ফলাফল খুবই ভালো হবে। তার সাথে অবশ্যই বুদ্ধিমত্তার সাথে সিদ্ধান্ত নেওয়াটা জরুরি।

Leave a Comment