পশ্চিমবঙ্গ উদীয়মান স্বনির্ভর কর্মসংস্থান প্রকল্প 2022 (USKP) | Udiyaman Swanirbhar Karmasansthan Prakalpa 2022 (USKP)

Udiyaman Swanirbhar Karmasansthan Prakalpa 2022 (USKP) (পশ্চিমবঙ্গ উদীয়মান স্বনির্ভর কর্মসংস্থান প্রকল্প 2022), উদীয়মান স্বনির্ভর কর্মসংস্থান প্রকল্প কি? এই প্রকল্পের লাভ কি? উদীয়মান স্বনির্ভর কর্মসংস্থান প্রকল্পতে কিভাবে আবেদন করবেন? এবং এই প্রকল্পের আরও তথ্য এখানে দেখুন।

কর্ম সংস্থানের মধ্যে দিয়ে একটি মানুষের জীবনযাত্রা সুষ্ঠু ভাবে চলার সুযোগ পায়। আর যদি কোনো মানুষের কোন রকম কর্মসংস্থান না থাকে, তাহলে তার জীবন দুর্বিষহ হয়ে ওঠে। দৈনিক জীবনের বিভিন্ন রকমের চাহিদার পাশাপাশি আরো অন্যান্য স্বপ্নপূরণ থেকে শুরু করে আরো চাহিদা পূরণ করার ক্ষেত্রে কর্মসংস্থানের প্রয়োজন আছে অবশ্যম্ভাবী।

উদীয়মান স্বনির্ভর কর্মসংস্থান প্রকল্প (USKP):

উদ্দেশ্য:

এ ক্ষেত্রে উদীয়মান স্বনির্ভর কর্মসংস্থান প্রকল্প টি যুবক দের বেকারত্ব ঘোচানোর জন্য অনেকখানি সহযোগিতা করবে।

পশ্চিমবঙ্গ উদীয়মান স্বনির্ভর কর্মসংস্থান প্রকল্প - Udiyaman Swanirbhar Karmasansthan Prakalpa
পশ্চিমবঙ্গ উদীয়মান স্বনির্ভর কর্মসংস্থান প্রকল্প – Udiyaman Swanirbhar Karmasansthan Prakalpa

এই প্রকল্পের সবচেয়ে মূল উদ্দেশ্য হলো বৈধভাবে বেকার যুবকদের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার অনুদান এবং ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের কাছ থেকে খুবই সহজ শর্তে লোন দেবে অর্থাৎ ঋণ দেবে নিজেদের কর্মসংস্থানের জন্য। যার মাধ্যমে অর্থনৈতিক ভাবে স্বনির্ভর হয়ে তারা তাদের কর্মসংস্থান খুঁজে নিতে পারবেন।

এই প্রকল্পের উপকারিতা:

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের বিভিন্ন রকমের প্রকল্পের বিভিন্ন রকমের উপকারিতা কিন্তু রয়েছে, সেটা অস্বীকার করার কোন জায়গা নেই। উদীয়মান স্বনির্ভর কর্মসংস্থান প্রকল্প বিভিন্ন রকমের উপকারিতা রয়েছে। সেগুলো সম্পর্কে নিচে আলোচনা করা হলো:-

  • এই প্রকল্পের আওতায় যে লোন পাওয়া যাবে সেটা হল সর্বাধিক সীমা নির্ধারিত, রাজ্য সরকার প্রদত্ত, মার্জিন টাকা, ভর্তুকি সহ আলাদা আলাদা প্রতি পঞ্চাশ হাজার টাকা (৫০,০০০) দেওয়া হয়।
  • মার্জিন মানি ভর্তুকি হবে প্রতি মাথাপিছু ঋণের পরিমাণ এর ২৫%  সর্বোচ্চ ১২,৫০০ টাকার অনুসারে।

এই প্রকল্পে আবেদন করতে গেলে আবেদনকারীর যোগ্যতা:

১) সর্বপ্রথম আবেদনকারীর বয়স সর্বনিম্ন ১৮ বছর থেকে সর্বোচ্চ ৪৫ বছর বয়সের মধ্যে হতে হবে।

২) এছাড়া এস সি (SC), এস টি (ST), ওবিসি (OBC) ভুক্ত আবেদনকারীদের ক্ষেত্রে বয়সের সীমা বাড়তে পারে।

৩) আবেদনকারী কোন আর্থিক সংস্থা বা ব্যাংকে ঋণগ্রস্ত যেন না হয়ে থাকেন।

৪) এছাড়া আগে থেকে আরো অন্যান্য পশ্চিমবঙ্গের বেকারদের স্বনির্ভর কর্মসংস্থান প্রকল্প এর সুবিধা গ্রহণ করছেন কিনা সেটাও দেখতে হবে।

৫) এছাড়া প্রতিবন্ধী অথবা মহিলা, তপশিলি উপজাতি, প্রাক্তন চাকরিজীবী, সংখ্যালঘু শ্রেণি, ইউ পি, প্রশিক্ষিত প্রার্থীদের জন্য অগ্রাধিকার রয়েছে।

এই প্রকল্পের জন্য কিভাবে আবেদন করতে হবে:

এক জন যোগ্য প্রার্থী অথবা আবেদনকারী বছরের যে কোনো সময় স্থানীয় কর্মসংস্থান এক্সচেঞ্জে একটি নির্ধারিত ফরম এই প্রকল্পের আওতায় সহায়তার জন্য আবেদন করতে পারবেন যে কোন সময়।

এক্ষেত্রে এই প্রকল্পের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে ভিজিট করতে হবে (https://employmentbankwb.gov.in/uskp.php) সেখান থেকে ওই প্রকল্পের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

পশ্চিমবঙ্গ সরকার অনেক আগেই “সেসরু’ ৮৫” প্রকল্প চালু করেছে। যার নাম পরবর্তীতে পরিবর্তন করে “উদীয়মান স্বনির্ভর কর্মসংস্থান প্রকল্প (USKP) – Udiyaman Swanirbhar Karmasansthan Prakalpa (USKP)” করা হয়েছে।

এই প্রকল্পের লক্ষ্য হলো নথিভুক্ত কর্মহীন যুবক-যুবতীরা যার ফলে অর্থনৈতিক ভাবে স্বনির্ভর হয়ে তাদের পছন্দ মতো প্রকল্প বেছে নিতে পারেন। অর্থাৎ কর্মসংস্থান খুঁজে নিতে পারেন।

তার জন্য সরকারি ভর্তুকি এবং সহজ শর্তে ব্যাংক এবং অর্থনৈতিক সংস্থা থেকে লোন অথবা ঋণের ব্যবস্থা করে দেওয়ার কথা রয়েছে। এই প্রকল্পে অর্থাৎ তারা ৫০ হাজার টাকা (৫০,০০০) পর্যন্ত আর্থিক সহযোগিতা পাবেন, যার ২৫% রাজ্য সরকার দ্বারা অনুদিত।

অনেক ক্ষেত্রে  উদ্যোক্তা হওয়া সত্বেও টাকার অভাবে কোন কিছু ব্যবসা বা কোন কর্মসংস্থান খুঁজে পাওয়া যায় না। তার জন্য বাধ্য হয়ে বেকার হয়ে ঘুরতে হয় যুবক ছেলে মেয়েদের। আর সেই কারণে “উদীয়মান স্বনির্ভর কর্মসংস্থান প্রকল্প” এর মধ্যে দিয়ে ৫০ হাজার টাকা পর্যন্ত আর্থিক সহযোগিতা পাবেন সমস্ত বেকার যুবক ছেলে মেয়েরা। তার মধ্যে দিয়ে তাদের পছন্দমতো যেকোনো কর্মসংস্থান নিয়ে স্বাবলম্বী হতে পারবেন অনায়াসেই। খুবই কম শর্তে ব্যাংক থেকে লোন নিতে পারবেন এই প্রকল্পের মধ্যে দিয়ে।

এস সি / এস টি / ও বি সি (SC / ST / OBC) সার্টিফিকেট যাদের রয়েছে তারা এই প্রকল্পে অনেকটাই অগ্রাধিকার পাবেন।

প্রকল্পটির নামের মধ্যেই লুকিয়ে রয়েছে এ প্রকল্পের প্রধান উদ্দেশ্য অর্থাৎ দেশের ভবিষ্যৎ যেমন ছোট ছোট ছেলেমেয়েরা তেমনি যুবক-যুবতীরাও। তাদের কর্মসংস্থানের মধ্যে দিয়ে আর্থিক স্বচ্ছলতা আসবে প্রতিটি পরিবারের পাশাপাশি রাজ্যে এবং দেশে।

স্ব-নিযুক্তি সচেতনতা ও অনুপ্রেরণা শিবির:

স্বনিযুক্তি প্রকল্পে সাধারণ কথা মাথায় রেখেই পশ্চিমবঙ্গের এম্প্লয়মেন্ট ডাইরেকটোরেট সারা রাজ্যে ছড়িয়ে থাকা কর্ম নিয়োগ কেন্দ্র গুলির মাধ্যমে এন্টারপ্রেনারশিপ ডেভলপমেন্ট কর্মসূচির এই নতুন কাজটি করে চলেছে এর প্রধান দুটি উদ্দেশ্য হলো:-

১) বর্তমান কাজের বাজার এর সমস্ত রকম গতি প্রকৃতি বিচার করার পর কর্ম প্রার্থীদের স্ব-নিযুক্তি সম্ভাবনা ও প্রয়োজনীয়তার ব্যাপারে সচেতন করাই হলো এই প্রকল্পের প্রধান উদ্দেশ্য।

২) এছাড়া সংযুক্তির নানা রকম দিক যেমন ধরুন- কিভাবে প্রকল্প তৈরি করতে হবে, কি করে পণ্য কে বাজারজাত করতে হবে, কিভাবে ব্যাংকের সঙ্গে আদান প্রদান ঠিক রাখতে হয়, এই সমস্ত ব্যাপারে যতটা সম্ভব শিল্পোদ্যোগী দের কিছু প্রয়োজনীয় খোঁজ খবর ও পরামর্শ দেওয়া হবে এই প্রকল্পের মধ্যে দিয়ে।

তাছাড়া এ ধরনের কর্মসূচি গুলি বিভিন্ন রকমের ব্যাংক পরিচালিত RSETI, রুরাল SELF-EMPLOYMENT ট্রেনিং ইনস্টিটিউট এর মাধ্যমে সংগঠিত করা হচ্ছে।

Home Click here
Official Website Click here

Leave a Comment