কালীপূজা 2023: কালীপুজোর দিন এই নিয়মগুলি মানলে আপনার ভাগ্যের চাকা ঘুরবেই

প্রতিটি উৎসবের মতো বাঙ্গালীদের জীবনে কালীপুজো একটি খুবই বড় উৎসব দুর্গাপুজোর পর। দুর্গাপূজো কেটে যাওয়ার পর মন খারাপ কাটিয়ে লক্ষ্মী পূজা আসে, তারপরেই ধনতেরাসের সাথে সাথে চারিদিকে কালীপুজোর আমেজ চলে আসে, এর সাথে আসে শীতের হাওয়া অর্থাৎ বলতে গেলে কালী পূজার সাথে সাথে শীত পড়ে যায়।

অন্যান্য সব পূজার মতো কালী পূজাতেও এমন অনেক নিয়ম রয়েছে যেগুলি আপনি মেনে চললে সংসারে উন্নতি সাধন হওয়ার পাশাপাশি আপনার জীবনে আসবে অনেকখানি পরিবর্তন। কালীপূজাকে মহাশক্তির পূজা হিসেবে বিবেচনা করা হয়। কালী পূজার রাতে কালী পূজার পাশাপাশি অনেক গৃহস্থ বাড়িতে লক্ষ্মীপূজাও হয়ে থাকে, এই লক্ষ্মীপূজাকে আবার দীপান্বিতা লক্ষ্মী পূজাও বলা হয়।

কালীপুজোর দিন এই নিয়মগুলি মানলে আপনার ভাগ্যের চাকা ঘুরবেই
কালীপুজোর দিন এই নিয়মগুলি মানলে আপনার ভাগ্যের চাকা ঘুরবেই

এছাড়াও যারা অবাঙালি রয়েছেন তারা দীপাবলিতে অর্থাৎ দিওয়ালিতে লক্ষ্মী গণেশের পূজা করে থাকেন। হিন্দু ধর্ম অনুসারে খুবই পবিত্র এই দিনে সৌভাগ্য বৃদ্ধি চাইলে ঠাকুরঘর থেকে আপনাকে কয়েকটি জিনিস সরিয়ে ফেলতে হবে। কেননা এগুলি পুজোর ঘরে থাকা মানে আপনার অনেকখানি ক্ষতি হয়ে যেতে পারে।

একটু আগেই জানলাম কালীপূজা হল মহাশক্তির পূজা। অতীত, বর্তমান ও ভবিষ্যৎ এই তিনটি কাল নিয়ে মহাকাল আর সেই মহাকালের শক্তি হলেন দেবী কালী। দশমহাবিদ্যার ইনি হলেন প্রথমা মহাবিদ্যা, অনন্তকালের সৃষ্টির রূপিনী পরমা প্রকৃতির রূপ এই মহাকালী।

কালী পূজার দিন এমন অনেক নিয়ম কানুন মেনে চলতে হয় যেগুলির ফলে আপনার জীবনে আসবে অনেকখানি পরিবর্তন এবং সংসারে আসবে সুখ ও সমৃদ্ধি। তবে সেই জিনিসগুলি সম্পর্কে অনেকেই হয়তো জানেন না।

তো চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক, কালীপূজাতে কোন নিয়ম গুলি আপনি মেনে চললে জীবনে আসবে আমুল পরিবর্তন:

১) আতপ চাল, নারকেল ও জবা ফুল:

প্রতিটি পূজা পার্বণের মতো কালী পূজাতেও আতপ চাল, নারকেল এবং ফুল এর প্রয়োজন পড়ে।

তবে মা কালীর সবথেকে প্রিয় ফুল হলো জবা ফুল অর্থাৎ লাল জবা অনেকে আবার একে রক্তজবাও বলে থাকেন এবং ১০৮ টি জবা ফুলের মালা এবং কিছু ঘি দান করলে আপনার অনেক মঙ্গল সাধন হবে।

২) ঘি এর প্রদীপ:

ঘিয়ের প্রদীপ প্রতিটি পূজা পার্বণে প্রয়োজন পড়ার পাশাপাশি এটি খুবই পবিত্র বলে মনে করা হয়।

কালী পূজার দিন সকাল থেকে সারারাত পর্যন্ত একটা ঘি এর প্রদীপ যদি ঠাকুর ঘরের আসনে জ্বালিয়ে রাখেন, তাহলে অনেক শুভ ফল লাভ করবেন আপনি। তবে খেয়াল রাখতে হবে, সেই প্রদীপটি যেন কখনোই নিভে না যায়।

৩) কালো পঞ্চমুখী প্রদীপ:

কালীপূজা তেই শুধুই নয়, প্রতিটি পূজায় পঞ্চ প্রদীপের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। তবে কালী পূজার দিন রাতে বাড়ির ছাদে অথবা বাড়ির যে কোন জায়গায় কালো পঞ্চমুখী প্রদীপ জ্বালাতে পারেন।

এতে আপনার বাড়ি থেকে সমস্ত নেতিবাচক বিষয়গুলি দূরে সরে গিয়ে শুভ বিষয়গুলি প্রবেশ করবে।

৪) কালো তিল:

কালী পূজার দিন সন্ধ্যার সময় বটগাছের গোড়ায় কালো তিল রাখাও শুভ বলে মনে করা হয়। অনেকে মনে করেন এমন করার ফলে মনের সকল আশা পূর্ণ হয়।

তবে এখানে একটা কথা বলে রাখা জরুরী যে, কোন কালী মন্দিরে একটি খাঁড়া/খড়গ দান করতে পারেন, যা কিনা দেবী কালীর একটি অস্ত্র

৫) ব্রাহ্মণ ভোজন:

“অতিথি দেব ভব”, অর্থাৎ আপনার ঘরে যারা অতিথি রুপে আসবেন তারা নারায়ণ হিসেবে আপনার কাছে আসতে পারেন। সেই অনুসারে অনেকেই অতিথিকে খুবই যত্ন সহকারে স্বাগত জানিয়ে থাকেন নিজের ঘরে।

এছাড়া কালী পূজার উপবাস যারা করেন, তারা পূজোর পরের দিন ব্রাহ্মণ ভোজন করাতে পারেন। ব্রাহ্মণ ভোজন করানো খুবই পূণ্যের কাজ, তাই খুবই শুভ ফল পাবেন আপনি।

৬) চামড়ার জিনিসপত্র:

কালী পূজার দিন বিশেষভাবে খেয়াল রাখতে হবে যে, পূজোর ঘরে যেন চামড়ার ব্যাগ অথবা চামড়া দিয়ে তৈরি কোন জিনিসপত্র না রাখা হয়। এতে পূজার ঘর অপবিত্র হয় বলে ধারণা করা হয়।

৭) জুতো বাহিরে রাখুন:

হিন্দু ধর্ম মতে জুতো খুবই অপবিত্র জিনিস, যা কখনোই পরে ঘরের মধ্যে প্রবেশ করা যায় না। কেননা ঘরটাকেও মন্দির বলে মনে করা হয়।

সেই কারণে কালী পূজার রাতে খেয়াল রাখবেন যেন কোনোভাবেই পুজোর ঘরে অথবা বাড়িতে জুতো পরে কেউ যেন না চলে যান। এমনকি পূজার ঘরের আশেপাশেও জুতো রাখা কোন মতেই ঠিক নয়।

৮) মা কালীর মূর্তি:

মূর্তির উপরেও রয়েছে অনেক নিষেধাজ্ঞা, কেননা সব রকম মূর্তিতে পূজা অর্চনা করা যায় না। আপনি কি রকম মূর্তির আরাধনা করছেন তার উপরেও অনেক কিছুই নির্ভর করে। মন্দিরের নানা ধরনের দেবতার পূজা করা হয়।

কিন্তু সাংসারিক জীবন থেকে যখন কেউ বাড়িতেই পুজা করেন তার কিছু নিয়ম কানুন থাকে। আর গৃহস্থ বাড়ির সকল সদস্য এবং মালিককে সেগুলি মেনে চলতে হয়।

যেমন যদি কেউ বাড়িতে শিবলিঙ্গ রাখার পরিকল্পনা করেন, তবে তা যেন বৃদ্ধাঙ্গুলের থেকে বড় না হয়। এদিকটা বিশেষভাবে খেয়াল রাখা জরুরী।

৯) বাসি ফুল:

সকলেই নিশ্চয়ই চাইবেন যে, একেবারে সদ্য ফোঁটা এবং সদ্য গাছ থেকে তোলা ফুল দিয়ে দেব-দেবীদের পূজা করতে, আর তাই কালী পূজার দিন সে দিকটাও খেয়াল রাখতে হবে। বাসি ফুল দিয়ে কখনোই পূজা করা যাবে না।

ব্যস্ত জীবনের মধ্যে দিয়েও অনেকে দেখা যায় বাজার থেকে কেনা ফুল নিয়ে আসেন, সে ক্ষেত্রে সেই ফুলের মধ্যে অনেক সময় বাসি ফুল অথবা আগের দিনের ফুল মেশানো থাকে, তবে এই ফুল দিয়ে কালী পূজা করা যাবে না।

আবার দেখা যায়, ব্যস্ততার কারণে আপনি আগের দিন বাজার থেকে টাটকা ফুল কিনে নিয়ে আসলেন, অথচ পরের দিন কালীপূজা করলেন, এমনটাও কিন্তু করা যাবেনা। সকালে টাটকা ফুল নিয়ে এসে তবেই আপনি সেই দিনে সেই টাটকা ফুল দিয়ে কালী পূজা করবেন।

১০) ভাঙা মূর্তি:

কোন দেবদেবীর মূর্তি ভেঙে গেলে তা কখনোই জোড়া লাগানোর চেষ্টা করবেন না এবং সেই জোড়া লাগানো মূর্তিতে পূজা করবেন না। ভাঙ্গা, ফাটা মূর্তি ঠাকুর ঘরে না রাখাই উচিত।

কোন মূর্তি ভেঙে গেলে সঙ্গে সঙ্গেই সেখানে নতুন মূর্তি স্থাপন করুন এবং সেটি অন্য জায়গায় সরিয়ে এখন অথবা বিসর্জন দিতে পারলে দিতে পারেন।

১১) পূর্বপুরুষের ছবি:

অনেকেই দেখা যায়, পরলোগগত অর্থাৎ মৃত পূর্বপুরুষের ছবি ঠাকুর ঘরে রাখেন। তবে এটা বাস্তু মতে এবং শাস্ত্রমতে একেবারেই উচিত নয়, এতে আপনার জীবনে অশান্তির কালো মেঘ ঘনিয়ে আসতে পারে।

ঠাকুর ঘরে দেব-দেবীদের অক্ষত এবং সুন্দর মূর্তি ছাড়া কোন পূর্বপুরুষের ছবি কখনোই লাগাবেন না।

১২) নিয়ম নিষ্ঠা:

বলা যায় প্রতিটি পূজাতে আপনার ভক্তি এবং নিষ্ঠা কতখানি তার ওপরেই নির্ভর করে দেব দেবী সন্তুষ্ট হয়ে থাকেন। তাতে আপনার নৈবেদ্যের আয়োজন খুবই কম হয়ে থাকে তাতেও ক্ষতি নেই।

কেননা আপনি ভক্তি রেখে শুধুমাত্র ফুল চন্দন দিয়েই সন্তুষ্ট করতে পারবেন দেবদেবীদের।

তাই কালীপূজাতে আপনাকে সব থেকে যে দিকটা বেশি খেয়াল রাখতে হবে, সেটা হল আপনার মনে ভক্তি ও নিষ্ঠা এবং যে নিয়ম গুলি মেনে কালীপূজা করতে হয় সেই নিয়মগুলি অক্ষরে অক্ষরে পালন করা। নিজে থেকে কোনোরকম মন গড়া নিয়ম দিয়ে পূজা করা উচিত নয়।

⭐ এইভাবে আপনি খুবই সহজে ভক্তি রেখে মা কালীর পূজা করতে পারবেন। তবে তার আগে এই বিষয়গুলি আপনাকে বিশেষ করে খেয়াল রাখতে হবে, কোনরকম ভুল ত্রুটি যেন না হয় এই দিন।

তাহলে সংসারে উন্নতি সাধন হওয়ার পরিবর্তে অনেকখানি ক্ষতি সাধন হয়ে যেতে পারে, সেটা নিশ্চয়ই আপনি কখনোই চাইবেন না ! নিজের ভাগ্যকে ফেরাতে আর সংসারে সুখ, শান্তি, সমৃদ্ধি ফিরিয়ে আনতে কালী পূজার দিন এই নিয়ম গুলি আপনার জীবনে পরিবর্তন এনে দেবে।

Leave a Comment