ধনতেরাস 2023: ধনতেরাসের দিন এই কাজগুলি করলে সংসারে নেমে আসবে অমঙ্গল

ধনতেরাস হল সুখ ও সমৃদ্ধি পাওয়ার দিন। এই দিন যদি আপনি বিশেষ কিছু শুভ জিনিস ঘরে কিনে আনেন, সেক্ষেত্রে যেমন শুভ লাভ পাবেন তেমনি এমন অনেক কিছু বিধি নিষেধ আছে, সেগুলি যদি আপনি মেনে চলেন তাহলে আপনার সংসারে উন্নতি ঠেকাতে পারবেনা কেউই। না হলে আপনি যদি সেই নিষেধাজ্ঞা না মেনে থাকেন, তাহলে আপনার সংসারে নেমে আসতে পারে অমঙ্গল।

সেই কারনে ধনতেরাসের দিন আপনাকে সেই সব বিষয়ের প্রতি বিশেষভাবে খেয়াল রাখতে হবে। যেমন পিতলের জিনিস কেনাটা খুবই শুভ, তেমনি এর পাশাপাশি ঘরবাড়ি, গাড়ি, ইলেকট্রিক জিনিস, আবার এই দিন লক্ষ্মী, গণেশের ছবি দেওয়া সোনা অথবা রুপোর কয়েন কেনাও খুবই শুভ বলে মনে করা হয়।

ধনতেরাসের দিন এই কাজগুলি করলে সংসারে নেমে আসবে অমঙ্গল
ধনতেরাসের দিন এই কাজগুলি করলে সংসারে নেমে আসবে অমঙ্গল

তবে আপনি কি জানেন ? এই ধনতেরাসের দিন এমন অনেক দৈনন্দিন জীবনের কাজ রয়েছে যেগুলি করা থেকে বিরত থাকতে হবে, না হলে ধন-সম্পদের দেব-দেবী আপনার উপরে অসন্তুষ্ট হলে আপনার সংসারে অনেক বড় ক্ষতি হয়ে যেতে পারে।

তো চলুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক, ধনতেরাসের দিন আপনি কোন কাজগুলি করা থেকে বিরত থাকবেন:

১) কাঁচের জিনিসপত্র কিনবেন না:

পিতল, রুপা, সোনা এই সমস্ত জিনিসপত্র গুলি কেনা খুবই শুভ। তবে এই দিন স্টিলের বাসনপত্র, কাঁচ অথবা প্লাস্টিকের জিনিসপত্র বা থালা বাটি কেনা অশুভ বলে মনে করা হয়। এটা রাহু অথবা শনি সম্বন্ধিত হয় বলে এগুলি এই শুভদিনে কেনা থেকে আপনাকে বিরত থাকতে হবে।

আর ধনতেরাসের এই শুভ দিনে এই জিনিসগুলি কেনার অর্থ হলো দুর্ভাগ্যকে আপনি নিজেই নিজের ঘরে ডেকে আনছেন। সেই কারণে খেয়াল রাখা জরুরী যে, এই দিন যেন ভুলেও এই সমস্ত জিনিসপত্র গুলি আপনি না কেনেন।

২) ঋণ দেওয়া অথবা ঋণ নেওয়া যাবে না:

কোন বড় ধরনের কাজ করার জন্য যেমন আমাদের হঠাৎ করে কোন ঋণের প্রয়োজন হয়, তেমনি সারা বছর আপনি এই কাজ করে থাকলেও ধনতেরাসের এই শুভদিনে কারোর কাছ থেকে ঋণ নেবেন না অথবা কাউকে নিজের থেকে কোন ঋণ অথবা টাকা ধার দেবেন না।

কারণ ঋণ নেওয়া ও দেওয়া উভয়েরই আর্থিক অনটনের মুখে পড়তে হয়। সেই কারণে সংসারে অর্থের অভাব হয় বলে ধারণা করা হয়।

আর এই উৎসব যেহেতু ধন-সম্পদ বৃদ্ধি হওয়ার উৎসব, সেই কারণে এই ধনতেরাসের দিনে এই কাজ থেকে আপনাকে বিরত থাকতেই হবে।

৩) কাঁচের কোন মূর্তিতে পুজো করা যাবে না:

বর্তমানে কাঁচ দিয়ে তৈরি অনেক দেব দেবীর মূর্তি রয়েছে। যেগুলি ঘরে সৌন্দর্য বৃদ্ধি করার পাশাপাশি সেগুলোকে ঠাকুর ঘরেও সাজিয়ে রাখা হয় পূজা-অর্চনা করার জন্য।

তবে ধনতেরাসের দিন ধনের দেবতা কুবের এবং মা লক্ষ্মী, ভগবান ধন্বন্তরি এবং যমরাজের পূজা করা হয় বিশেষভাবে।

খেয়াল রাখার জরুরী যে, সেই মূর্তিগুলি কখনোই কাঁচ অথবা প্লাস্টার অফ প্যারিস এর তৈরি কোন মূর্তি যেন না হয়। আর যদিও বা হয়ে থাকে এই মূর্তিতে কিন্তু পূজা করা যাবে না।

৪) খালি পাত্র বাড়িতে প্রবেশ করানো নিষেধ:

আপনি হয়তো এই ধনতেরাসের শুভ দিন উপলক্ষে কোন পিতলের পাত্র কিনলেন অথবা অনেকে রুপোর পাত্র কিনে থাকেন, সেক্ষেত্রে যখন সেটি বাড়িতে প্রবেশ করাবেন কখনোই সেটি খালি প্রবেশ করাবেন না।

প্রয়োজনে বাইরে থেকে বাড়িতে প্রবেশ করানোর আগে চাল অথবা মিষ্টি সেই পাত্রে ভরে তারপরে সেই ভরা পাত্র বাড়িতে নিয়ে আসুন।

ধনতেরাসের এই শুভ দিনে বাড়িতে কোন খালি পাত্র আনা মানে অশুভকে আমন্ত্রণ করা। তাই নিশ্চয়ই কেউ চাইবেন না, বাড়িতে এই শুভদিনে অশুভ কিছু হোক, তাই শুভ হোক সবকিছু। তার জন্য আপনাকে খালি পাত্র ভর্তি করেই ঘরে আনতে হবে।

৫) জুতো, চপ্পল সরিয়ে রাখুন:

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে একটি গুরুত্বপূর্ণ জিনিস এবং কাজে লাগার জিনিস হল জুতো অথবা চপ্পল। তবে প্রতিটি উৎসবে ঘরবাড়ি সুন্দর করে সাজানোর পাশাপাশি কোন পুরানো জুতো অথবা যেকোনো জুতো সামনে থাকাটা খুবই খারাপ দেখানোর তার পাশাপাশি অশুভও বটে।

সেই কারণে ধনতেরাসের দিন নিজের বাড়ির সদর দরজার সামনে কখনোই জুতো, চপ্পল খুলে রাখবেন না। সকাল থেকেই বাড়ির সদর দরজার সামনে ধুয়ে, মুছে পরিষ্কার করে সাজিয়ে রাখুন। এর ফলে দেবী লক্ষ্মী এবং আরও দেবদেবীদের আপনার ঘরে প্রবেশ করতে যেন কোন রকম বাধা সৃষ্টি না হয়।

৬) ঘুমাবেন না:

ঘুম আমাদের শরীরের জন্য খুবই উপকারী হলেও ধনতেরাস এর এই শুভদিনে কখনোই ভুলেও ঘুমিয়ে পড়বেন না। এরকম করলে বাড়িতে নেতিবাচক শক্তির সঞ্চয় হয় যা কিনা সংসারে উন্নতিতে বাধা সৃষ্টি করে।

৭) লোহা কেনা অশুভ:

লোহা এমন একটি বস্তু যা কিনা পূজা পার্বণে একেবারেই চল না বললেই চলে। কেননা লোহা অশুভ একটি জিনিস বলে মনে করা হয়।

সোনা রুপা পিতল যেমন শুভ এই ধনতেরাসের দিনে, ঠিক অপরদিকে ততটাই অশুভ বলে মনে করা হয় লোহার জিনিসপত্র কে। শাস্ত্রমতে এই ধনতেরাসের দিন কোন মতেই লোহার কোন জিনিসপত্র ঘরে আনা যাবে না। শুধু তাই নয়, স্টেনলেস স্টিলের বাসনপত্রও কেনা ঠিক নয়।

৮) ধারালো জিনিসপত্র কিনবেন না:

আমাদের সংসারে দৈনন্দিন জীবনযাত্রায় ধারালো জিনিস পত্রের প্রয়োজন পড়ে ঠিকই, তবে সেগুলি কেনার জন্য আপনার কাছে সারা বছর তো পড়েই রয়েছে, তাই না ! কেন বলছি এ কথা? কারণ, ধনতেরাসের দিন কোনভাবেই কিন্তু কোনোরকম ধারালো জিনিসপত্র কিনতে পারবেন না।

অর্থাৎ এক্ষেত্রে সম্পূর্ণরূপে নিষেধাজ্ঞা রয়েছে। যেমন ধরুন:- ছুরি, কাঁচি, বটি, দা, কুড়ুল, সূঁচ যা কিছু ধারালো জিনিসপত্র রয়েছে সেগুলি এই ধনতেরাসের দিনে কেনা মানে খুবই অশুভ হিসেবে বিবেচনা করা হয়।

৯) কালো রং একেবারেই নয়:

যেকোনো শুভ উৎসবে, পূজা-পার্বণে, কোন শুভ অনুষ্ঠানে কালো রং খুবই বেমানান এবং অশুভ। আর তাইতো ধনতেরাসের দিন কালো রং এড়িয়ে চলুন।

অন্যান্য পূজা পার্বণের মতো এই উৎসবে ও আপনাকে কালো রং এড়িয়ে চলতে হবে। কেননা কালো রং শুভ হয় না।

কালো রঙের পোশাক, কালো রঙের কোন কিছুই এই দিন যেন চোখের সামনে না থাকে, সে দিকটা বিশেষভাবে খেয়াল রাখবেন।

১০) ধনতেরাসের দিন কিনবেন না তেল:

কি শুনতে অবাক লাগছে, তাই তো ! অবাক লাগলেও এটাই কিন্তু শাস্ত্র মতে জানা যায়। ধনতেরাসের এই শুভদিনে তেল না কেনাই ভালো।

প্রয়োজনে দু চার দিন আগে থেকে আপনার প্রয়োজনীয় তেল কিনে রাখতে পারেন। আর শুভ ফল লাভ করার ক্ষেত্রে এই দিন কোন তেল যেন আপনি ভুলেও না কেনেন।

১১) ভুলেও উপহার দেবেন না:

ধনতেরাসের দিন আরো অন্যান্য বিধি নিষেধ থাকার পাশাপাশি এই দিন আপনি কাউকে উপহার দেবেন না। এটা উচিতও নয়, কারণ মনে করা হয় এই দিন যদি উপহার দেওয়া হয়, তাহলে নিজের সমৃদ্ধি অন্যের হাতে আপনি তুলে দিচ্ছেন। সেটা নিশ্চয়ই আপনি চাইবেন না !

তাই যদি কাউকে কিছু উপহার দিতেই হয়, তাহলে ধনতেরাসের আগে দিতে পারেন অথবা ধনরাসের পরেও দিতে পারেন।

যেহেতু এই ধনতেরাস আপনার জীবনে সুখ, শান্তি, সমৃদ্ধি নিয়ে আসার জন্য আপনি নিষ্ঠা ভরে পালন করছেন ধনতেরাস, আর সেই সমৃদ্ধি নিশ্চয়ই আপনি চাইবেন না কারুর হাতে চলে যাক, তাই না !

১২) নকল গয়না কিনবেন না:

ধনতেরাসের দিন সোনার গয়না, রুপোর গয়না, কেনার রীতি রয়েছে। তবে এই দিন যদি আপনি নকল সোনার গয়না বলতে সিটি গোল্ড এবং কস্টিউম জুয়েলারি যদি ঘরে কিনে আনেন, সে ক্ষেত্রে মা লক্ষ্মীকে অপমান করা হয়।

আপনার যদি সেগুলি কেনার থাকে তাহলে আগেও কিনতে পারেন অথবা ধনতেরাসের পরেও কিনতে পারেন। ধনতেরাসের এই শুভ দিনে এই গয়না গুলি কখনোই কিনবেন না।

⭐ আর হ্যাঁ, এখানে একটা কথা বলে রাখা জরুরী যে, যে শুভ জিনিসগুলি আপনি কিনবেন সেগুলি অবশ্যই ধনতেরাসের ত্রয়োদশী তিথি থাকাকালীন কেনা উচিত। এই তিথি খুবই শুভ আর এই শুভ তিথির মধ্যে কোন শুভ জিনিস কেনা মানে আপনার সংসারে সু-সমৃদ্ধি আসবে।

ধনতেরাসের পুণ্য তিথিতে এই সমস্ত বিধি নিষেধ গুলি মেনে চলা আপনার জন্য খুবই জরুরী। ছোটখাটো বিষয়ে দেব-দেবী অসন্তুষ্ট হন, এমনকি ঘর থেকেও চলে যান।

তাই তাদেরকে প্রসন্ন করতে এবং ঘরেতে তাদেরকে সবসময়ের জন্য অধিষ্ঠিত রাখার জন্য এই বিধি নিষেধ গুলো আপনাকে অবশ্যই অবশ্যই মানতে হবে। সকলের ধনতেরাস কাটুক খুবই শুভ ভাবে, সকলের জীবন হোক সুখ ও শান্তিতে ভরা এবং ধন-সম্পদে পরিপূর্ণ।

Leave a Comment