2022 পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাংক গোল্ড লোন আবেদন পদ্ধতি | 2022 Punjab and Sind Bank Gold Loan in Bengali

Punjab and Sind Bank Gold Loan 2022 (পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাংক গোল্ড লোন 2022): How to Apply for Punjab and Sind Bank Gold Loan? | Punjab and Sind Bank Gold Loan Apply in Bengali.

সোনার অলংকার রূপসজ্জা তে আলাদা মাত্রা যোগ করে ঠিকই, আর সেই কারণে প্রতিনিয়ত সোনার চাহিদা বেড়েই চলেছে। তাছাড়া এই সোনার অলংকার একটা ভালো সম্পত্তি হিসেবে আপনার কাছে থাকে যেটা অমূল্য সম্পদ হিসেবে আপনি গুছিয়ে রাখেন।

তবে এই অমূল্য সম্পদ অনেক সময় আপনার অনেক বিপদে কাজে আসে। যেমন ধরুন, আপনার কোনো ছোটখাটো অনুষ্ঠান, বিয়ে, পড়াশোনার খরচ, হাসপাতালের খরচ, ইত্যাদি ক্ষেত্রে আপনি এই সোনা এবং সোনার অলংকার কাজে লাগাতে পারেন।

Bank NamePunjab and Sind Bank
Type of LoanGold Loan
Loan Application ProcessOnline / Offline
Official Websitehttps://punjabandsindbank.co.in/

সেক্ষেত্রে আপনাকে পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাংক এর থেকে গোল্ড লোন নিতে হবে। যার মাধ্যমে আপনি খুবই কম এবং আকর্ষণীয় সুদের হারে গোল্ড লোন পেয়ে যাবেন এবং বলতে গেলে কয়েক ঘন্টার মধ্যেই লোন এর অ্যামাউন্ট হাতে হাতে অথবা ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পেয়ে যাবেন, যার ফলে আপনার অনেকটাই সুবিধা হবে।

পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাংক গোল্ড লোন আবেদন পদ্ধতি | Punjab and Sind Bank Gold Loan in Bengali
পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাংক গোল্ড লোন আবেদন পদ্ধতি | Punjab and Sind Bank Gold Loan in Bengali

তো চলুন তাহলে জানা যাক, কিভাবে আপনি পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাংক গোল্ড লোন এর জন্য আবেদন করবেন এবং এই লোন সম্পর্কিত আরো অন্যান্য তথ্য সম্পর্কেও জানা যাক:

Punjab and Sind Bank Gold Loan (পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাঙ্ক গোল্ড লোন):

সরল সুদের হার: সাত পার্সেন্ট (৭%)

প্রতি ১ গ্রাম সোনার উপরে লোন এমাউন্ট: ৩,৫০৬ টাকা থেকে ৪,৬২১ টাকা।

প্রসেসিং ফি: লোন এমাউন্ট এর উপরে এক পারসেন্ট (১%)।

সর্বোচ্চ লোন এমাউন্ট: সর্বনিম্ন ১০ হাজার টাকা থেকে সর্বোচ্চ এক কোটি টাকা পর্যন্ত তার সাথে আবেদনকারীর ইনকাম প্রুফ।

প্রি পেমেন্ট চার্জ: ২% + GST 

লোন পরিশোধের সময়সীমা: সর্বনিম্ন এক বছর থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ৩৬ মাস অর্থাৎ তিন বছর পর্যন্ত।

পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাঙ্ক গোল্ড লোনের সুবিধা:

পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাংক গোল্ড লোন নেওয়ার জন্য আবেদনকারীর যে সমস্ত সুবিধাগুলি মিলতে পারে:

১) খুব তাড়াতাড়ি লোন পাওয়া যায়: সবথেকে বড় সুবিধা হল, আপনি যে দিনে এই গোল্ড লোন এর জন্য আবেদন করবেন সেই দিনেই কিন্তু এই লোন এর অ্যামাউন্ট আপনার হাতে চলে আসবে, বলতে গেলে খুবই কম সময়ের মধ্যে আপনি আপনার সোনার অলংকারের উপরে নির্ভর করে ১০ হাজার টাকা থেকে শুরু করে ১৫ লাখ টাকা পর্যন্ত লোন পেতে পারেন।

২) গোল্ড কয়েন: তাছাড়া পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাংক গোল্ড লোন, সোনার অলংকার এবং সোনার কয়েন এর উপরেও দিয়ে থাকে। আর যদি আপনার সোনার অলংকার অথবা সোনার কয়েন বিশেষ করে সোনার কয়েন যদি ২৪ ক্যারেট গোল্ড হয়ে থাকে তাহলে আপনি এই লোন খুব তাড়াতাড়ি পেয়ে যেতে পারেন।

৩) লোন পরিশোধের সময়সীমা: লোন পরিশোধের সময়সীমা খুবই কম বলতে গেলে সর্বনিম্ন এক বছর থেকে সর্বোচ্চ ৩৬ মাস অর্থাৎ তিন বছর পর্যন্ত। আর সেক্ষেত্রে আপনার লোন পরিশোধ করতে গেলে এই সময়টা দিয়ে থাকে পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাংক।

৪) আকর্ষণীয় সুদের হার: খুবই কম এবং আকর্ষণীয় সুদ গোল্ড লোন এর উপর প্রতি গ্রাম সোনার উপরে আপনি আকর্ষণীয় সুদের হার পেতে পারেন। যেটা আপনার জন্য বেশ সুবিধাজনক। বর্তমান সোনার দাম এর উপর নির্ভর করে আপনি গোল্ড লোন পাবেন এবং সুদের হার নির্ভর করবে।

পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাঙ্ক গোল্ড লোন প্রতি গ্রাম সোনার উপরে লোন অ্যামাউন্ট:

প্রতি ১ গ্রাম সোনার উপর:

২৪ ক্যারেট সোনা:৪৬২১ টাকা
২২ ক্যারেট সোনা:৪২৯০ টাকা
২০ ক্যারেট সোনা:৩৯০০ টাকা
১৮ ক্যারেট সোনা:৩৫১০ টাকা

পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাংক গোল্ড লোন নেওয়ার জন্য আবেদনকারীর যোগ্যতা:

১) আবেদনকারীর বয়স অবশ্যই ১৮ থেকে ৭০ বছরের মধ্যে হতে হবে।

২) আবেদনকারীকে অবশ্যই ভারতীয় নাগরিক হতে হবে।

৩) আবেদনকারী বেতনভুক্ত কর্মচারী অথবা self-employed হলেও আবেদন করতে পারবেন।

৪) গোল্ড কোয়ালিটি: সর্বনিম্ন ১৮ ক্যারেট হতে হবে (১০ গ্রাম সোনা)

৫) এক্ষেত্রে আপনার ব্যাংকের সিভিল স্কোর (CIBIL Score) কোন ভূমিকা পালন করে না। আপনার সোনার অলংকার এবং সোনার কয়েন এর উপর নির্ভর করেই কিন্তু এই লোন আপনি অনায়াসেই পেয়ে যাবেন।

পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাঙ্ক গোল্ড লোন নেওয়ার জন্য ডকুমেন্টস:

পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাংক গোল্ড লোন (Punjab and Sind Bank Gold Loan) নেওয়ার জন্য আবেদন কারীর যে সমস্ত কাগজপত্র গুলো প্রয়োজন হবে সেগুলি হল:

১) আবেদনকারীর দুটো পাসপোর্ট সাইজের ফটো।

২) পরিচয় পত্র হিসেবে- পাসপোর্ট, আধার কার্ড, প্যান কার্ড।

৩) ঠিকানার প্রমাণপত্র হিসেবে- রেন্ট এগ্রিমেন্ট, ড্রাইভিং লাইসেন্স, আধার কার্ড, রেশন কার্ড, ইলেকট্রিসিটি বিল ইত্যাদি।

পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাংক সোনার কোন জিনিসের বিপরীতে গোল্ড লোন দিয়ে থাকে?

১) পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাঙ্ক শুধুমাত্র ১৮ ক্যারেট থেকে ২২ ক্যারেট সোনার উপরে লোন দিয়ে থাকে।

২) ৫০ গ্রামের কম সোনার কয়েল ব্যাংক নেয়না গোল্ড মনের বিষয়।

৩) Minted Coin গোল্ড লোন এর ক্ষেত্রে ব্যাংক এ গ্রহণযোগ্য নয়।

৪) সর্বনিম্ন ১০ গ্রাম সোনা হতে হবে এই লোন নেওয়ার জন্য।

পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাঙ্ক গোল্ড লোন আবেদন করবেন কিভাবে?

তো এবার তাহলে জানা যাক কিভাবে আপনি পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাঙ্ক গোল্ড লোন (Punjab and Sind Bank Gold Loan) এর জন্য আবেদন করবেন:

Step 1. প্রথমত আপনাকে পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাংক এর অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে ভিজিট করতে হবে, https://www.punjabandsindbank.co.in

Step 2. এবার লোন অপশনে গিয়ে গোল্ড লোন (Gold Loan) অপশনটি সিলেক্ট করুন। তারপর এপ্লাই নাও অপশনটি তে ক্লিক করুন।

Step 3. এরপর আপনার সামনে একটি লোন অ্যাপ্লিকেশন ফর্ম (Punjab and Sind Bank Gold Loan Apply Form) আসবে, যে ফরমটি প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস গুলি দিয়ে ভালোভাবে ফিলাপ করতে হবে এবং সোনার কোন কোন জিনিসের বিনিময় আপনি গোল্ড লোন নেবেন সেটা যদি চেয়ে থাকে দিতে হবে।

Step 4. সবকিছু ভালোভাবে ফিলাপ করার পর চেক করে নিয়ে সাবমিট (Submit) বাটনে ক্লিক করুন। আপনার লোনটি প্রসেস হতে শুরু করবে।

তাছাড়া আপনি অফলাইনে ও এই লোনের জন্য ভালোভাবেই আবেদন করতে পারবেন। তার জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্ট এবং সোনার অলংকার ও সোনার কয়েন গুলি নিয়ে আপনার কাছাকাছি পাঞ্জাব এন্ড সিং ব্যাংক এর যে কোন ব্রাঞ্চে গিয়ে এই লোনের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

এইভাবে খুব সহজ কয়েকটি পদক্ষেপ অবলম্বন করে আপনি আপনার প্রয়োজন অনুসারে আপনার সোনার অলংকার গুলি দিয়ে গোল্ড লোন নিতে পারবেন পাঞ্জাব এন্ড সিন্ড ব্যাংক থেকে। যা কিনা খুবই কম এবং আকর্ষণীয় সুদের হার আর লোন পরিশোধের সময়সীমা সর্বনিম্ন এক বছর থেকে সর্বোচ্চ তিন বছর পর্যন্ত পাবেন, যেটা আপনার অনেকটাই সুবিধাজনক হতে পারে।

HomeClick here
Official WebsiteClick here

Leave a Comment