প্রধানমন্ত্রী স্বনিধি যোজনা বিনা গ্যারেন্টি লোন কিভাবে আবেদন করবেন?

করোনা ভাইরাসের ফলে সারা দেশে লকডাউন রাখা হয়েছিল যার কারণে প্রচুর রাস্তার ধারে বিক্রেতা, শাক-সব্জি বিক্রেতা, ফল বিক্রেতা, সেলুন, পানের দোকান ইত্যাদি মানুষের রোজগার বন্ধ হয়ে গেছে।

সেই কারণে কেন্দ্র সরকার দ্বারা নতুন যোজনা নিয়ে এসেছে যার নাম  প্রধানমন্ত্রী স্ট্রিট ভেন্ডার স্ব-নির্ভরতা তহবিল প্রকল্প (Pradhan Mantri Street Vendor Aatmanirbhar Nidhi Scheme) অর্থাৎ “প্রধানমন্ত্রী স্বনিধি যোজনা।”

কারা পাবে এই যোজনার লাভ?

এই প্রধানমন্ত্রী স্বনিধি যোজনা অনুসারে রাস্তার ধারে বিক্রেতা, শাক-সব্জি বিক্রেতা, ফল বিক্রেতা, সেলুন, পানের দোকান বা এই রকম ছোটো ছোটো কাজ করা মানুষদের আবার নতুন করে কাজ শুরু করবার জন্য সাহায্য প্রদান করা।

এই ধরণের সকল কাজের ব্যবসা যারা করে তাদের এই যোজনার অন্তর্গত রাখা হয়েছে এই যোজনার দ্বারা প্রায় ৫০ লক্ষেরও বেশি মানুষের লাভ হবে।

প্রধানমন্ত্রী স্বনিধি যোজনা
প্রধানমন্ত্রী স্বনিধি যোজনা

 

কি লাভ পাওয়া যাবে এই যোজনাতে?

এই প্রধানমন্ত্রী স্বনিধি যোজনা দ্বারা নতুন করে ব্যবসা শুরু করার জন্য প্রথমে ১০,০০০ টাকা বিনা গ্যারেন্টি লোন দেওয়া হবে।

বিনা গ্যারেন্টি মানে এই লোন নেবার জন্য  রকম গ্যারেন্টি দিতে হবে না এর গ্যারেন্টি সরকার দেবে, এছাড়া সময়ে লোন মিটিয়ে দিলে ৭% সুদে সাবসিডি দেওয়া হবে।

অলনাইনে পেমেন্ট করলে এবং তার রশিদ দেখালে মাসে মাসে ক্যাশব্যাক পাবার সুবিধা আছে।

প্রধানমন্ত্রী স্বনিধি যোজনা
প্রধানমন্ত্রী স্বনিধি যোজনা

 

কিভাবে আবেদন করবেন?

এই যোজনায় আবেদন করার জন্য অনলাইন ওয়েবসাইটে যেতে হবে যা শীঘ্র শুরু করা হবে। এছাড়া আবেদনে সুবিধার জন্য একটি মোবাইল অ্যাপ দেওয়া হবে যার দ্বারা সহজেই এই যোজনাতে আবেদন করা যাবে।

এর জন্যে ওয়েবসাইটে ও অ্যাপে একটি ফর্ম দেওয়া হবে যেখানে আবেদকের সম্পূর্ণ তথ্য ভরতে হবে এবং তা সাবমিট করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী স্বনিধি যোজনা
প্রধানমন্ত্রী স্বনিধি যোজনা

 

কত দিনে মিটাতে হবে এই লোন?

এই প্রধানমন্ত্রী স্বনিধি যোজনার অন্তর্গত দেওয়া লোন ১ বছরের মধ্যে মেটাতে হবে। এই লোনের টাকা সরাসরি আবেদকের ব্যাঙ্ক একাউন্টে আসবে যার পেমেন্ট অনালাইনে বা অ্যাপের মাধ্যমে করা যাবে। এই ধরণের ডিজিটাল পেমেন্ট করলে সরকার থেকে ক্যাশব্যাক দেবার কথা বলা হয়েছে।

এই যোজনা অন্তর্গত সকল রাস্তার ধারে বিক্রেতা, শাক-সব্জি বিক্রেতা, ফল বিক্রেতা, সেলুন, পানের দোকান ইত্যাদি স্ট্রিট ভেন্ডার যারা ২৪ মার্চ ২০২০ এর আগে এই কাজ করতো তাদের নতুন ভাবে কাজ শুরু করার জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে।

Leave a Comment