প্রধাণমন্ত্রী কৃষান সম্মান নিধি 2022 (PM KISAN 2022) – সমস্ত কিছু এক নজরে

ভারতের দরিদ্র কৃষকদের কথা চিন্তা করে কেন্দ্রীয় সরকার একটি আর্থিক প্রকল্প হাতে নিয়েছে, যার মাধ্যমে ভারতের কৃষক সমাজ তাদের কৃষি কাজের জন্য আর্থিক সহায়তা পেয়ে থাকবে। এতে করে ভারতের গ্রামীন কৃষক লাভবান হবে সেই সাথে দেশের কৃষিখাত শক্তিশালী হয়ে উঠবে।

প্রধাণমন্ত্রী কৃষান সম্মান নিধি
প্রধাণমন্ত্রী কৃষান সম্মান নিধি

আজ আমরা আপনাদের সাথে এই প্রধাণমন্ত্রী কৃষান সম্মান নিধি (PM- KISAN) নিয়ে আলোচনা করবো। আমরা জানার চেষ্টা করবো এই প্রকল্পের উদ্দেশ্য কি ? এই প্রকল্পের আবেদনের শেষ তারিখ কবে? বাছাই করার প্রক্রিয়া কি সহ বিস্তারিত আরো অনেক বিষয়। আসুন দেখে নি প্রধাণমন্ত্রী কৃষান সম্মান নিধি (PM- KISAN) তে কি আছে।

প্রধাণমন্ত্রী কৃষান সম্মান নিধি (PM- KISAN) প্রকল্পের উদ্দেশ্য কি ?

এই প্রকল্পের উদ্দেশ্যগুলি নিম্নরুপ।

১) ভারতের ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের আয় বাড়ানোর লক্ষ্যে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্যোগে পরিচালিত প্রকল্প হলো “প্রধাণমন্ত্রী কৃষান সম্মান নিধি (PM- KISAN)”।

২) এই প্রকল্পের মাধ্যমে কৃষকরা সফল ও লাভজনকভাবে কৃষিকাজ করার জন্য প্রয়োজনীয় বীজ সংগ্রহ, সার ও পানি দেয়াসহ নানা বিষয়ের জন্য আর্থিক সহায়তা দেয়া হয়ে থাকে, যার ফলে কৃষকরা উপকৃত হয়।

৩) এই প্রকল্প কৃষকদের গ্রামের মহাজন থেকে চড়া সুদে ঋণ নেয়া হতে রক্ষা পাবে এবং সেইসাথে তাদের কৃষিকাজের জন্য সঠিকভাবে বীজ, সার, পানি , কীটনাশক ইত্যাদি সরবরাহ নিশ্চিত করে।

কোন কোন পরিবার এই প্রধাণমন্ত্রী কৃষান সম্মান নিধি (PM- KISAN) পাবার জন্য বিবেচিত হবেঃ

যে সকল পরিবারে স্বামী-স্ত্রী এবং ছোট বাচ্চা আছে এবং নূন্যতম ২ হেক্টর জমি আবাদ করে থাকে সে সকল পরিবার এই প্রধাণমন্ত্রী কৃষান সম্মান নিধি (PM- KISAN) এর আওতায় আসবে।

প্রধাণমন্ত্রী কৃষান সম্মান নিধি (PM- KISAN) এর কিছু তথ্যঃ

১) এই প্রকল্পের সুবিধাভোগীর সংখ্যা নির্ধারন করা হয়েছে ২০১৫-২০১৬ সালের কৃষিশুমারীর উপর ভিত্তি করে।

২) ২০১৮-১৯ সালের জন্য সম্ভব্য সুবিধাভোগী পরিবার ধরা হয়েছে ১৩.১৫ কোটি পরিবার।

৩) কিছু পরিবার সম্ভবত আর্থিকভাবে ইতিমধ্যেই সচ্ছল হওয়ায় প্রকৃত সুবিধাভোগীর সংখ্যা বর্তমানে ১২.৫ কোটি হয়েছে।

৪) বর্তমান প্রচলিত ভূমি রেকর্ডই এই প্রধাণমন্ত্রী কৃষান সম্মান নিধি (PM- KISAN) এর জন্য কার্যকর হবে।

আধার কার্ডের ব্যবহারঃ

১) এই প্রধাণমন্ত্রী কৃষান সম্মান নিধি (PM- KISAN) প্রকল্পের জন্য আধার কার্ড থাকা অত্যাবশ্যকীয়। তবে, কারো আধার কার্ড না থাকলে তার অন্যান্য সকল কাগজপত্র যাচাই করে ঐ কৃষকের একাউন্টে টাকা প্রদান করতে হবে।

২) এই প্রকল্পের সকল কার্যক্রম আধার কার্ডের অনুযায়ী হবে, কারো আধার কার্ড না থাকলেও আধার কার্ড ডাটা বেজের উপর ভিত্তি করেই এই প্রকল্পের টাকা প্রদান করা হবে।

৩) এই প্রকল্পের টাকা সবসময়েই প্রাপ্ত ব্যক্তির একাউন্টে প্রদান করা হবে, অন্য কোন ব্যক্তির একাউন্টে এই টাকা প্রদান করা যাবে না।

প্রধাণমন্ত্রী কৃষান সম্মান নিধি (PM- KISAN) এর আর্থিক বরাদ্ধ

১) ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের ১০০% আর্থিক সহায়তায় এই এই প্রধাণমন্ত্রী কৃষান সম্মান নিধি (PM- KISAN)-পরিচালিত হবে।

২) ২০১৮-২০১৯ অর্থবছরের জন্য ভারত সরকার এই প্রকল্পের জন্য ২০,০০০ কোটি টাকা বরাদ্ধ দিয়েছে।

৩) ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের জন্যও ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার ৭৫,০০০ কোটি টাকা বরাদ্ধ রেখেছে।

এই প্রধাণমন্ত্রী কৃষান সম্মান নিধি (PM- KISAN) এর সুবিধা কি কিঃ

১) এই প্রকল্পের আওতায় কৃষকরা তাদের কৃষিকাজ চালানোর জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের কাছ হতে ৬,০০০ টাকা পেয়ে থাকে। এই টাকা প্রতিমাসে ২,০০০ টাকা করে ৩ মাসে কৃষকের আধার কার্ড একাউন্টে দেয়া হয়।

২) ১-১২-২০১৮ হতে ৩১-০৩-২০১৯ তারিখের মধ্যে প্রথম কিস্তির টাকা বিতরন করা হয়।

প্রধাণমন্ত্রী কৃষান সম্মান নিধি (PM- KISAN) এর রক্ষণাবেক্ষণ

১) এই প্রকল্প ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারের একটি মনিটরিং টিম তদারকি করে থাকে।

২) এই তদারকি টিমের নেতৃত্যে থাকেন প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, যিনি তথ্য, প্রশিক্ষণ এবং সবার সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে থাকেন।

৩) একটি পর্যবেক্ষণ প্রক্রিয়ায় জাতীয়, রাজ্য এবং জেলা পর্যায়ে এই প্রধাণমন্ত্রী কৃষান সম্মান নিধি (PM- KISAN) পরিচালিত হয়ে থাকে।

৪) একজন কেবিনেট সেক্রেটারী জাতীয় পর্যায়ে এই প্রকল্পের দেখাশুনা করে থাকেন, সেই সাথে স্টেট ও ডিস্টিক্ট পর্যায়েও প্রকল্পের তদারকি করা হয়ে থাকে।

আর্থিকভাবে সচ্ছল কিছু পরিবারকে এই প্রকল্পের আওতা হতে বাইরে রাখা হবে এবং তা যথাযথভাবে কেন্দ্রীয় সরকারকে জানানো হবে।

আমাদের আজকের লেখা হতে আমরা প্রধাণমন্ত্রী কৃষান সম্মান নিধি (PM- KISAN) প্রকল্প নিয়ে বিস্তারিত জানতে পারলাম। জানতে পারলাম কারা এই প্রকল্পের সুবিধা নিতে পারবে, কত টাকার সুবিধা পাওয়া যায়। কিভাবে এই প্রকল্পের টাকা বিতরন করা হয়।

আগামীতে আমরা এই প্রকল্পের আরো বিস্তারিত জানার চেষ্টা করবো, সবসময় সঠিক তথ্য পেতে আমাদের সাইটে সবসময় চোখ রাখুন।

Leave a Comment