Life Insurance পলিসি দিয়ে কিভাবে লোন নেয়া যায়? জেনে নিন সবকিছু

Life Insurance: আমাদের জীবনে বিভিন্ন সময়ে নানাবিধ কারণে টাকার প্রয়োজন হয়ে থাকে। অনেক সময় আমরা টাকা খুঁজতে গিয়ে দিশেহারা হয়ে যাই। সব সঞ্চয় শেষ হয়ে আমরা ব্যাংক থেকে লোন নেয়ার চেষ্টা করি। কিন্তু ব্যাংক থেকে পারসোনাল লোন নিতে গেলে যা যা কাগজপত্র প্রয়োজন হয় তা সবসময় আপনার নাও থাকতে পারে।

আপনার বেতন নির্দিষ্ট অংকের কম হলে, আপনার সকল আয় ব্যাংকে জমা না হলে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ্য আপনাকে লোন দেয়ার জন্য বিবেচনা নাও করতে পারে। তাই আপনি পড়ে যেতে পারেন মহাসংকটে। আমরা অনেকেই হয়তো জানিনা যে, আমাদের লাইফ ইন্সুরেন্স পলিসি করা বিনিয়োগ দেখিয়ে আমরা সহজেই ব্যাংক হতে লোন নিতে পারি।

Life Insurance পলিসি দিয়ে কিভাবে লোন নেয়া যায়? জেনে নিন সবকিছু
Life Insurance পলিসি দিয়ে কিভাবে লোন নেয়া যায়? জেনে নিন সবকিছু

এভাবে আমরা খুব সহজেই ব্যাংক থেকে লোন নিয়ে নিয়ম অনুযায়ী ঋন পরিশোধ করে আমাদের প্রয়োজন মিটাতে পারি। আজ আমরা Life Insurance পলিসি ব্যাবহার করে কিভাবে লোন নেয়া যায় সেই বিষয়ে আলোচনা করবো।

Life Insurance কেনার উদ্দেশ্য অকাল মৃত্যুতে পরিবার আর্থিক সুবিধা পাওয়া হলেও, আজকাল লাইফ ইন্সুরেন্সের নানাবিধ ব্যবহার হওয়ায় লাইফ ইন্সুরেন্স থাকলে আপনি অনেক প্রকার উপকার পেতে পারেন। আপনার Life Insurance করা থাকলে আপনি লাইফ ইন্সুরেন্স দেখিয়ে লোন পেতে পারেন।

এই লোন নিরাপদ লোনের অন্তর্ভুক্ত হওয়ায় পার্সোনাল লোনের চাইতে এই লোনের সুদের হার কম হয়ে থাকে। নিরাপদ লোন হিসেবে প্রক্রিয়াকরণ সময় কম থাকায় ও সুদের হার কম থাকায় দিনে দিনে Life Insurance ব্যবহার করে লোন নেয়া জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। Gold Loan ও একই প্রকারের হলেও বাজারে সোনার দাম কমে যাওয়ার সম্ভাবনা  থাকায় অনেক সময় এই  Gold Loan নিয়ে জটিলতা তৈরি হয়।

অন্যদিকে লাইফ ইন্স্যুরেন্স ব্যবহার করে লোন নিলে দাম কমার কোন সম্ভাবনা না থাকায় এই ধরনের লোন ঝামেলা সৃষ্টি হবার সু্যোগ থাকে না। Life Insurance পলিসি থেকে লোন নিতে অনেক বিষয় মাথায় রাখতে হয়। এখন আমরা কিছু লাইফ ইন্স্যুরেন্স লোনের কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা করবো।

১) আপনাকে এই ঋন নিতে যাওয়ার আগে অবশ্যই দেখতে হবে, আপনার লাইফ ইন্স্যুরেন্স পলিসি লোন নেয়া অনুমোদন করে না। কিছু লাইফ ইন্স্যুরেন্সে বেঁচে থাকলে কোন টাকা ফেরত পাওয়া যায় না। এসব ইন্স্যুরেন্স ব্যবহার করে লোন নেয়া যায় না। আপনি যদি প্রিমিয়াম ঠিক ভাবে না দেন তবেও আপনি লোন পেতে সমস্যায় পড়তে পারেন। সাধারনত, মানিব্যাক পলিসি, হোল লাইফ পলিসি বা এন্ডাওমেন্ট পলিসির ক্ষেত্রে লোন পাওয়া যায়। তাই আপনি লাইফ ইন্স্যুরেন্স শুরু করার আগেই এসব দেখে নিতে পারেন, অথবা লোন নেয়ার চিন্তা করলেই আপনার লাইফ ইন্স্যুরেন্স পলিসিতে কি আছে কি নাই এটা ভালোভাবে দেখে নেবেন।

২) লাইফ ইন্স্যুরেন্স ব্যবহার করে লোন নিলে আপনিই হলেন নিরাপত্তা জামানত, তাই অন্য লোন যেমন কার-লোন, হোম-লোন নিতে যত অডিট, অনুসন্ধানের মুখামূখী হতে হয়, লাইফ ইন্স্যুরেন্স থেকে লোন নিলে তুলনামুলক কম ঝামেলায় লোন পাওয়া যেতে পারে। এজন্য লাইফ ইন্স্যুরেন্স থেকে লোন নিলে কম সময়েই প্রক্রিয়া কার্যক্রম শেষ হয়ে লোনের টাকা হাতে পাওয়া যেতে পারে। তবে আপনার মাসিক আয় নিয়ে জানতে চাইতে পারে, কারণ আপনার ঋন শোধ করতে পারবেন কিনা তা সবাই জানতে চাইবে।

৩) আপনি লাইফ ইন্স্যুরেন্স থেকে লোন নিলে কত টাকা ঋন পেতে পারেন তা আপনার নেয়া লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানীর পলিসিতে লেখা থাকবে, তাই আপনি লাইফ ইন্স্যুরেন্স করার আগেই জেনে নেবেন, অথবা লোন প্রক্রিয়া শুরু করার সময় জেনে নেবেন আপনি লাইফ ইন্স্যুরেন্স থেকে ব্যবহার করে কত টাকা ঋন পেতে পারেন। সাধারনত বিভিন্ন Life Insurance পলিসিতে লোন নিলে সারেন্ডার ভ্যালুর ৮০-৮৫% অংশ লোন নেয়া যায়। আপনার পলিসি যদি ৫ লক্ষ টাকার সারেন্ডার ভ্যালু হয় তবে আপনি ৪ লক্ষ টাকা হতে ৪ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত লোন নিতে পারেন। তবে লোন দেয়ার চুড়ান্ত ক্ষমতা ঋন প্রদানকারী প্রতিষ্ঠানের কাছে থাকে। আপনি ঋন গ্রহন করলে আপনার লাইফ ইন্স্যুরেন্সের সকল অধিকার ঋনদাতা প্রতিষ্ঠানের কাছে চলে যায়। লাইফ ইন্স্যুরেন্স সম্পূর্ণ ট্যাক্স মুক্ত হওয়ায় এই আয় আয়কর মুক্ত হিসেবে বিবেচিত হয়ে থাকে।

৪)  লাইফ ইন্স্যুরেন্স ব্যবহার করে ঋন নিলে সুদের হার, ঋনের অংকের পরিমান নির্ভর করে আপনার পলিসি কত পুরোনো তার উপর। আপনি যত বেশি প্রিমিয়াম দিয়েছেন আপনি ঋনদাতা প্রতিষ্ঠানের নিকট ততবেশি গুরুত্বপূর্ন হিসেবে বিবেচিত হবেন। ঋনের সুদের হার অনেক সময় এক এক কোম্পানীর আলাদা আলাদা হয়ে থাকে। তাই লাইন ইন্স্যুরেন্সের লোন নেয়ার আগে আপনি কয়েকটি কোম্পানীর সাথে কথা বলে, দেখে শুনে তারপর লোন নেয়ার সিদ্ধান্ত নিন। আপনাকে মনে রাখতে হবে যে, আপনি লোন নেয়ার পরেও আপনাকে আপনার লাইফ ইন্স্যুরেন্সের প্রিমিয়াম জমা দিয়ে যেতে হবে। অন্যথায় কিছু কিছু ঋন প্রদানকারী কোম্পানী আপনার ইন্স্যুরেন্স পলিসি বাতিল করে দিতে পারে।

আজ আমরা Life Insurance পলিসি ব্যবহার করে কিভাবে লোন নেয়া যায় তার কিছু বিষয়াদি নিয়ে আলোচনা করলাম। আমরা চেষ্টা করবো লাইফ ইন্স্যুরেন্স নিয়ে পরবর্তীতে আরো বিষদভাবে আলোচনা করতে। ইন্স্যুরেন্স সম্পর্কিত তথ্য জানতে আমাদের সাথেই থাকুন, আমাদের সাইটে নিয়মিত চোখ রাখুন। আপনাদের যে কোন মন্তব্য, পরামর্শ, প্রশ্ন আমাদের কমেন্টের মাধ্যমে জানাতে পারেন। আপনার সুখি ও নিরাপদ বিনিয়োগই আমাদের প্রত্যাশা।

Leave a Comment