কোন অপরাধমূলক কাজের মামলা দায়ের করবেন কিভাবে?

How to file a Criminal Case in Bengali: যদি কেউ কোন অপরাধ করে তাহলে কিভাবে তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করবেন? এর জন্য আপনাকে কি করতে হবে আর কোথায় মামলা করবেন? আসুন জেনে নিন যে কোন অপরাধমূলক কাজের মামলা দায়ের করবেন কিভাবে? এর জন্য কি কি দরকার হবে।

সমাজে বসবাস করার জন্য বেশ কিছু সমস্যার সম্মুখীন হতে হয় সবাইকে। সমাজে অপরাধ মূলক কাজকর্ম প্রায় সর্বত্রই লক্ষ্য করা যায়। আর আইন-কানুন সমাজে এই অপরাধমূলক কাজের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিয়ে থাকে এবং জনসাধারণকে সুরক্ষা প্রদান করে থাকে। তাছাড়া এই অপরাধ অপরাধ মূলক দৃষ্টিকোণ থেকে সামান্য যেতে পারে আইন দিয়ে।

কোন অপরাধমূলক কাজের মামলা দায়ের করবেন কিভাবে?
কোন অপরাধমূলক কাজের মামলা দায়ের করবেন কিভাবে?

অপরাধ প্রক্রিয়া সংহিতা 1973 অনুসারে অপরাধের মামলা দায়ের করার জন্য আইন কিছু বিষয়ের উপর আলোকপাত করে থাকে, সেগুলি হল:- 

১) পুলিশ স্টেশনে অভিযোগকারী দ্বারা অভিযোগ এর মামলা দায়ের করতে হবে।

২) যখন অভিযোগ কোন বিনা সন্দেহ জনক অপরাধের মধ্যে পড়ে থাকে তাহলে সেখানে পুলিশ ওয়ারেন্ট ছাড়া কোন ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করতে পারবেন না।

তাহলে পুলিশ এফ আই আর এর রেজিস্ট্রেশন করবেন না। আর অভিযোগ কারীকে এই ক্ষেত্রে যেখানে অপরাধ হয়েছে সেই অনুসারে অধিকার ক্ষেত্রে বিচারালয় যাওয়ার জন্য উপদেশ দিতে পারেন।

৩) এছাড়া পরীক্ষা-নিরীক্ষা সম্পন্ন হওয়ার পর সাক্ষ্যপ্রমাণ এর উপর ভিত্তি করে সক্ষম বিচারালয়, পুলিশ কেস অথবা রিপোর্ট ফাইল করতে হবে সি আর পি সি (CRPC) ধারা 173 অনুসারে করা যেতে পারে।

৪) শেষ রিপোর্ট দায়ের করার পর মামলার শেষ মামলা করার জন্য অভিযোগ কারী কে বিচারালয় দ্বারা একটি সুযোগ দেওয়া যেতে পারে।

৫) অভিযোগ পত্র দায়ের করার মামলাতে সি আর পি সি ধারা 190 অনুসারে আদালত দ্বারা করা যেতে পারে।

৬) যদি অপরাধ কেবল মাত্র সত্য বিচারালয় দ্বারা বিচার যোগ্য হয়ে থাকে তাহলে এই মামলা সত্য বিচারালয় এ সমর্পণ করা হবে। অন্যথা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এই মামলার উপরে এর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন।

৭) যদি কোন অভিযুক্ত ব্যক্তি ব্যক্তিগণ এর বিরুদ্ধে প্রথম প্রত্যক্ষ হয়, তাহলে আলাদা দোষারোপ এর উপর নির্ভর করে সেই বিচার করা হবে। তাছাড়া যদি কোন প্রথম ক্ষেত্রে এই বিষয়ে বিপরীতে মামলা দায়ের না করে থাকেন, তাহলে সেই অভিযুক্ত ব্যক্তি অথবা ব্যক্তিগণকে উন্মুক্ত করে দেওয়া যেতে পারে, বা ছেড়ে দেওয়া যেতে পারে।

৮) আর যদি অভিযোগ করা হয় কারও বিরুদ্ধে তাহলে সাক্ষ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে সেই অনুযায়ী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। এখানে দোষী ব্যক্তিদের দ্বারা অথবা তাদের পক্ষ থেকে পারস্পরিক এই বিষয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা অতি জরুরী, আর করাও কিন্তু সামিল রয়েছে।

৯) এর পরের পদক্ষেপ হলো সি আর পি সি ধারা 313 অনুসারে দোষী ব্যক্তিদের বয়ান এর উপর ভিত্তি করে পদক্ষেপ গ্রহণ করা।

১০) এর পরে যারা অভিযোগ দায়ের করবেন তাদের সাক্ষ্যপ্রমাণে উপর ভিত্তি করে দোষী ব্যক্তি অথবা দোষী ব্যক্তিদের উপরে বিভিন্ন রকমের আইনি ব্যবস্থা নেওয়া যেতে পারে।

১১) মৌখিক ভাবে এবং লিখিতভাবে বয়ান নেওয়া যেতে পারে দোষী ব্যক্তিদের এবং বিপরীত পক্ষ অভিযোগ কারীদের।

১২) বিচারালয়ের দ্বারা যে নির্ণয় দেওয়া হবে যার পরিণাম স্বরূপ দোষী ব্যক্তিদের শাস্তি অথবা জামিন বলতে গেলে রেহাই দেওয়া যেতে পারে। সেটা সম্পূর্ণ সাক্ষ্য প্রমাণের উপর ভিত্তি করে করা হবে।

১৩) অভিযুক্ত দের শাস্তির মামলাতে সাক্ষীর প্রশ্নের উপর নির্ণয় শোনার পর অথবা রায় ঘোষণার পর অভিযুক্ত ব্যক্তিদের সাজা অথবা শাস্তি ঘোষণা করা যেতে পারে।

তবে এখানে যে সমস্ত বিষয়গুলির উপরে আলোচনা করা হলঃ এটি কেবল মাত্র আপনার প্রাথমিক ধারনা এই বিষয়ে আপনি কখনোই সম্পূর্ণ রূপে এই বিষয়ের উপর গুলির উপর নির্ভর করে। এমন কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন না, যা আপনার পরিস্থিতিকে হিতে-বিপরীত করে তুলতে পারে।

তবে অবশ্যই আপনি এমন অপরাধমূলক কাজের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করার জন্য একজন অভিজ্ঞ উকিলের পরামর্শ নিতে পারেন। তার সাথে সাথে সমস্ত রকম কাজকর্ম গুলি মাথায় রেখে নিয়মকানুন গুলো মাথায় রেখে তবে অবশ্যই এই বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন।

এছাড়া একজন উকিল কিন্তু এ বিষয়ে তার ওকালতি জীবনযাত্রা তে যথেষ্ট জ্ঞান দিয়ে আপনাকে এই পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসতে অনেক খানি সাহায্য করবে।

অবশ্যই যথাযথ সাক্ষ্য-প্রমাণ এবং কোন প্রত্যক্ষদর্শী ব্যক্তিকে সাথে রাখাটা জরুরি। তাহলে আপনার এই অপরাধমূলক কেসের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করার জন্য অনেক খানি সহযোগিতা পেতে পারেন।

যদি আপনার সাথে এমন কোন ঘটনা ঘটে থাকে, সেটা আপনি আপনার কাছাকাছি পুলিশ স্টেশনে গিয়ে এফ আই আর দায়ের করতে পারেন। তবে অবশ্যই তার যথাযথ প্রমাণ আপনাকে দিতে হবে। তবে কিন্তু পুলিশ সেই বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে খুব তাড়াতাড়ি পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারবেন।

তবে আপনার সাথে আপনার পরিবারের সদস্য বন্ধু-বান্ধব এবং উকিল যদি যথেষ্ট ভাবে সহযোগিতা করে থাকেন, তাহলে এই পরিস্থিতিতে খুব সহজভাবে আপনি উত্তীর্ণ হতে পারবেন।

আর যথাযথ সময়ের মধ্যে যদি আপনি এফ আই আর দায়ের না করেন, তাহলে সেই অভিযুক্ত ব্যক্তিদের নির্দোষ হিসাবে সম্পূর্ণরূপে মুক্ত করে দেয়া হবে। তার সাথে সাথে প্রয়োজন পড়বে যথেষ্ট পরিমাণ প্রমাণ পত্র।

সমাজে বিভিন্ন রকমের অপরাধমূলক কাজ মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে, তার বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণ করতে পারেন। তবে সেটা একমাত্র উপায় আইনের দিক থেকে সম্পূর্ণ রূপে সহযোগিতা পাবেন। তার জন্য আপনাকে বেশ কিছু বিষয় খেয়াল রাখতে হবে, খুবই ভালভাবে।

আইন কখনোই খেলা করার বিষয় নয়, তাই যখনই আইনের দিকে কোন বিষয়ের জন্য যাবেন সেক্ষেত্রে অবশ্যই খেয়াল রাখবেন আপনার বিষয়টি যেন আইন সম্পূর্ণ রূপে গ্রহণ করতে পারে এবং গ্রহণযোগ্য হয়ে থাকে। তবে কিন্তু আইনি সহযোগিতা পাবেন, না হলে আপনার এই পদক্ষেপ অনেকখানি ক্ষতিসাধন করে দিতে পারে আপনার জীবনে।

Leave a Comment