2022 সিএসবি ব্যাংক বিজনেস লোন আবেদন পদ্ধতি | 2022 CSB Bank Business Loan in Bengali

CSB Bank Business Loan 2022 (সিএসবি ব্যাংক বিজনেস লোন 2022): How to Apply for CSB Bank Business Loan? | Documents for CSB Bank Business Loan in Bengali| CSB Bank Business Loan Apply in Bengali.

অনেকের মুখেই বলতে শোনা যায় যে, “ব্যবসার উপরে কোন কাজ নেই”। কেননা সেখানে নিজের মর্জি মতো কাজ করা যায়, তার সাথে ব্যবসা থেকে নিজের ইচ্ছামত বড় আকারে নিয়ে যাওয়া যায়, সবটুকু কষ্ট এর ফল নিজের কাছেই ফিরে আসে।

এইভাবে অনেকেই উদ্যোক্তা হয়েছেন, তার সাথে ছোট হোক অথবা বড় ব্যবসা শুরু করেছেন জীবন যাপনের উদ্দেশ্যে। তবে সে যাই হোক, ব্যবসা করতে গেলে তো পুঁজির প্রয়োজন হয়, তাই না! সেটা অল্প পরিমাণ হতে পারে আবার বেশি পরিমাণ।

Bank NameCSB Bank (Catholic Syrian Bank)
Bank TypePrivate Bank
Type of LoanBusiness Loan
Loan Application ProcessOnline / Offline
Official Websitehttps://www.csb.co.in/

তো সে ক্ষেত্রে অনেকেই তাদের সম্পত্তি বিক্রি করেও নিজের একটি রোজগারের রাস্তা খুঁজে নেওয়ার উদ্দেশ্যে ব্যবসা করার জন্য সেই টাকা ব্যবসার পিছনে খরচ করেন। তবে জমি বাড়ি যাই থাকুক না কেন সম্পত্তি হিসেবে, সেগুলো বিক্রি না করে ব্যাংক থেকে লোন নিতে পারেন।

সিএসবি ব্যাংক বিজনেস লোন আবেদন পদ্ধতি | CSB Bank Business Loan in Bengali
সিএসবি ব্যাংক বিজনেস লোন আবেদন পদ্ধতি | CSB Bank Business Loan in Bengali

সিএসবি ব্যাংক খুবই কম আর আকর্ষণীয় সুদের হারে ব্যবসার জন্য লোন দিয়ে থাকে। আপনি চাইলে এই সিএসবি ব্যাংক থেকে বিজনেস লোন নিতে পারেন, আর নিজের ব্যবসা টিকে শুরু করতে পারেন অথবা শুরু করার ব্যবসা থেকে বড় আকারে নিয়ে যেতে পারেন।

তো চলুন তাহলে জানা যাক, কিভাবে আপনি সিএসবি ব্যাঙ্ক বিজনেস লোন এর জন্য আবেদন করবেন, আর এই লোন সম্পর্কিত আরো অন্যান্য তথ্য সম্পর্কেও জানা যাক:

সিএসবি ব্যাঙ্ক বিজনেস লোন 2022 (CSB Bank Business Loan 2022):

১) MSME সুদের হার: ১৪% স্মল বিজনেস লোন হিসাবে।

২) লোন এমাউন্ট: সর্বোচ্চ ৫০ লাখ টাকা পর্যন্ত।

৩) লোন পরিশোধের সময়সীমা: ১২ মাস থেকে শুরু।

৪) আই টি আর অথবা ব্যালেন্স শীট: সর্বোচ্চ ২৫ লাখ টাকা।

৫) আবেদনকারীর ব্যবসার অভিজ্ঞতার সর্বনিম্ন তিন বছরের থাকতে হবে, কারেন্ট বিজনেস এর মধ্যে।

৬) প্রসেসিং ফি: ৫ লাখ টাকা লোন এর উপরে কোনরকম প্রসেসিং ফি নেওয়া হয় না এবং ১০ লাখ টাকা লোন এর উপরে ২% প্রসেসিং ফি নেওয়া হয়।

৭) Foreclosure Charges: ৩%।

সিএসবি ব্যাঙ্ক বিজনেস লোন প্রসেসিং ফি:

সর্বোচ্চ ২৫ লাখ টাকার লোন: NIL

২৫ লাখ টাকার বেশি লোনের জন্য: ১.০০% লোন এমাউন্ট এর উপরে যেটা সর্বনিম্ন ২৫০ টাকা।

সিএসবি ব্যাঙ্ক বিজনেস লোন ডকুমেন্টেশন চার্জ:

১০ হাজার টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ১ লাখ টাকা লোন এর উপরে ১০০ টাকা।

১,০০,০০০ টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ১০ লাখ টাকা লোন এর উপরে ৩০০ টাকা ১০ লাখ টাকার বেশি লোনের উপর এ ৫০০ টাকা।

সিএসবি ব্যাঙ্ক বিজনেস লোন সার্ভিস চার্জ:

১০ টাকা, সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকার উপরে।

পঁচিশ টাকা, ২৫ হাজার টাকা থেকে ২ লাখ টাকা লোন এর উপরে।

৭৫ টাকা, দু লাখ টাকা থেকে ৩ লাখ টাকার উপরে।

১২৫ টাকা, তিন লাখ টাকা থেকে পাঁচ লাখ টাকার উপরে।

১৭৫ টাকা, পাঁচ লাখ টাকা থেকে দশ লাখ টাকার উপরে।

২৫০ টাকা, ১০ লাখ টাকা থেকে ২৫ লাখ টাকার উপরে।

৫০০ টাকা, ২৫ লাখ টাকা থেকে ৫০ লাখ টাকার উপরে।

৭৫৯ টাকা, ৫০ লাখ টাকা থেকে ৭৫ লাখ টাকা লোন এর উপরে।

১,০০০ টাকা, ৭৫ লাখ টাকা থেকে ১ কোটি টাকা পর্যন্ত লোন এর উপরে।

২,০০০ টাকা, ১ কোটি টাকার বেশি লোনের উপরে।

সিএসবি ব্যাংক বিজনেস লোন পরিশোধের সময় সীমার উপর সুদের হার:

সর্বোচ্চ ৯০ দিন: ১০.৫০% Onwards

৯১ থেকে ১২০ দিন: ১০.৫৫% Onwards

১২১ দিন থেকে ১৮০ দিন: ১০.৬০% Onwards

১৮০ দিনের বেশি হলে ১০.৭০% Onwards

সিএসবি ব্যাঙ্ক বিভিন্ন বিজনেস লোন:

সিএসবি ব্যাংক গ্রাহকদের জন্য বিভিন্ন রকমের বিজনেস লোন স্কিম অফার করে থাকে, সেগুলি হল:

১) বায়ার সাপ্লায়ার ক্রেডিট (Buyers/ supplier credit): পাইকারি এবং রিটেইল ব্যবসার জন্য যদি কোন ব্যক্তি লোন নিতে চান তাহলে এই লোন অনায়াসেই নিতে পারেন সিএসবি ব্যাংক থেকে।

২) কমার্শিয়াল যানবাহন লোন (Commercial Vehicle Loan): অর্থাৎ অনেক ব্যবসার ক্ষেত্রে যানবাহনের প্রয়োজন পড়ে, সেই ক্ষেত্রে কিন্তু আপনি সিএসবি ব্যাংক থেকে এই লোন নিতে পারবেন।

৩) এক্সপোর্ট ফিনান্স (Export Finance): এক্সপোর্ট ব্যবসার জন্য আপনি এই লোন নিতে পারবেন বিদেশী এবং ভারতীয়দের জন্য এই লোন এভেলেবেল আছে ম্যানুফ্যাকচারিং প্রসেস ইন প্যাকেজিং এবং সিপিএম এর জন্য আপনার অনেক কাজে আসবে।

৪) ইম্পর্ট ফিনান্স (Import Finance): ব্যবসার র মেটেরিয়াল অথবা কাঁচামাল কেনার ক্ষেত্রে এই লোন আপনার অনেকটাই সাহায্য করবে।

৫) লেটার অফ ক্রেডিট (Letter of Credit): অর্থাৎ ব্যাংকের একটি ক্রেডিট পত্র দেওয়া হয় যার দ্বারা এটা গ্যারেন্টি দেওয়া হয় যে বিক্রেতাকে ক্রেতা সময়ে টাকা দেবে।

৬) ওভারড্রাফট (Overdraft): এর অর্থাৎ যখন একটি অ্যাকাউন্টে লেনদেন বা উত্তোলন কভার করার জন্য পর্যাপ্ত টাকা না থাকে তবুও ব্যাংক সেই একাউন্টের দরুন লোন দেওয়ার জন্য অনুমতি দিয়ে থাকে।

৭) টার্ম লোন (Term Loan): এমন একটি লোন যা নিশ্চিত সময়ের মধ্যে চুকানো হয়ে থাকে। টার্ম লোন বিশেষ করে এক থেকে দশ বছরের জন্য হয়ে থাকে। এই লোনে অনিশ্চিত সুদের হার লাগানো হয়।

৮) TReDs Bill Discounting: এর মাধ্যমে সূক্ষ্ম, লঘু ও মধ্যম উদ্যোগে বিশেষ ছাড় প্রদান করে থাকে।

৯) ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল লোন (Working Capital Loan): এটি এক ধরনের লোন যা কোন কোম্পানি দ্বারা প্রতিদিনের কাজের ভরপাই করার জন্য নেওয়া হয়ে থাকে।

সিএসবি ব্যাঙ্ক  বিজনেস লোন নেওয়ার জন্য প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস:

১) আবেদনকারীর ব্যাংক অ্যাকাউন্ট স্টেটমেন্ট।

২) ব্যবসার প্রমাণপত্র।

৩) লেটেস্ট আই টি আর।

৪) Original Board Resolution.

৫) পরিচয় পত্র হিসেবে- পাসপোর্ট, রেশন কার্ড, ট্রেড লাইসেন্স, ড্রাইভিং লাইসেন্স, প্যান কার্ড, ইত্যাদি।

৬) ইলেকট্রিসিটি বিল, ড্রাইভিং লাইসেন্স, সেলস টেক্স সার্টিফিকেট।

৭) বয়সের প্রমাণপত্র হিসেবে- প্যান কার্ড, পাসপোর্ট, ভোটার আইডি কার্ড।

সিএসবি ব্যাঙ্ক বিজনেস লোন আবেদন পদ্ধতি:

CSB Bank Business Loan অনলাইন আবেদন:

Step 1. প্রথমত আপনাকে সিএসবি ব্যাংকের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে ভিজিট করতে হবে, https://www.csb.co.in/

Step 2. এরপর লোন (Loan) অপশনে গিয়ে বিজনেস লোন (Bussiness Loan) অপশনের এর উপরে ক্লিক করুন। তারপর আপনি যে ধরনের বিজনেস লোন নিতে চাইছেন সেটি সিলেক্ট করুন।

Step 3. এরপর এ্যাপলাই নাও অপশনটিতে ক্লিক করুন, তারপর একটি নতুন ওয়েব পেজ ওপেন হবে, সেখানে লোন অ্যাপ্লিকেশন ফর্ম (CSB Bank Business Loan Application Form) দেখতে পাবেন। প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস গুলো দিয়ে সেই অ্যাপ্লিকেশন ফর্ম ফিলাপ করুন।

Step 4. তারপর ভালো ভাবে চেক করে নিয়ে সাবমিট (Submit) বাটনে ক্লিক করুন।

Step 5. এরপর আপনার লোন অ্যাপ্লিকেশন টি সি এস বি ব্যাংক ভেরিফাই করবে, আর খুব শীঘ্রই এই লোনের জন্য আপনার সাথে যোগাযোগ করবে।

CSB Bank Business Loan অফলাইন আবেদন:

এছাড়া আপনার কাছাকাছি সিএসবি ব্যাংকের যে কোন ব্রাঞ্চে গিয়ে বিজনেস লোন এর জন্য অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন, প্রয়োজনীয় ডকুমেন্টস সাবমিট করে তার জন্য কিন্তু আপনাকে ব্যাংকের ব্রাঞ্চে যেতে হবে, আর ম্যানেজারের সাথে কথা বলতে হবে।

তো এইভাবে সহজ কয়েকটি পদক্ষেপ অবলম্বন করে, সামান্য কিছু ডকুমেন্টেশনের মধ্যে দিয়ে, আকর্ষণীয় সুদের হারে, সিএসবি ব্যাঙ্ক বিজনেস লোন এর জন্য আবেদন করুন আর নিজের পছন্দের ও স্বপ্নের ব্যবসাটিকে বাস্তবে রূপান্তর করুন। আর এই ব্যবসার লাভ থেকে প্রতিমাসে খুবই কম ই এম আই এর মধ্যে দিয়ে এই লোন পরিশোধ করতে পারবেন খুব সহজে।

সি এস বি ব্যাঙ্ক কাস্টমার কেয়ার:

টোল ফ্রি নাম্বার:

১) 1800-266-9090

২) 0422-222-8422 (Charges Application)

৩) 0422-661-2300 (Charges Application)

৪) Outside India: + 91-422-6612300 (ISD charges applicable)

HomeClick here
Official WebsiteClick here

Leave a Comment