West Bengal Government Schemes News, Banglar Bhumi

Modi Government Schemes News, West Bengal Government Schemes News, Startup Business News of West Bengal, Khatian and Plot Information of West Bengal

About Pulse rate and nature in Bengali Laguage : Narir Goti o Prokiti Bangla

About Pulse rate and nature in Bengali Laguage : Narir Goti o Prokiti Bangla
About Pulse rate and nature in Bengali Laguage : Narir Goti o Prokiti Bangla
রোগ নির্ণয়ে প্রয়োজনীয় পরীক্ষা-নিরীক্ষা 

বিভিন্ন রোগে নাড়ীর গতি-প্রকৃতি বিভিন্ন রকম হয়ঃ 

বিভিন্ন রোগের নাড়ীর গতি বিভিন্ন হয় , নিচে বিভিন্ন নাড়ীর গতি ও প্রকৃতি সম্পূর্ণ ভাবে দেওয়া আছে, বিভিন্ন অবস্থার নাম এবং তা কিভাবে বুঝতে পারা যাবে। 

(১)জ্বর অবস্থায় – নাড়ী উষ্ণ ও দ্রুতগতি সম্পন্ন হয়।

(২)উদারময় বা পেটের অসুখে- নাড়ী শীতল ও দুর্বল অনুভূত হয়।

(৩)পিত্ত ও শ্লেষ্মা জ্বরে- নাড়ী কৃশ এবং সময়ে সময়ে শীতল ও মৃদুমন্দ গতি সম্পন্ন হয়।

(৪)বাত শ্লেষ্মা জ্বরে- নাড়ী মৃদুমন্দ গতিতে ধাবমান অ ঈষদুষ্ণ হয়।

(৫)বিষভক্ষণে বা সর্পদংশনে- নাড়ী গতি অত্যন্ত অস্থিরভাব যুক্ত হয়।
About Pulse rate and nature in Bengali Laguage
(৬)বায়ু ও পিত্ত জ্বরে- নাড়ী চঞ্চল, স্থূল, কঠিন এবং দোদুল্যমান অবস্থায় সঞ্চরমান হয়ে থাকে।

(৭)ঐকাহিক জ্বরে- নাড়ী থেকে থেকে প্রবাহিত হয় অর্থাৎ কিছুক্ষণ চলার পর কিছুক্ষণ স্তব্ধ আবার সঞ্চারমান আবার স্তব্ধ এইভাবে চলতে থাকে।

(৮)স্ত্রী সম্ভোগের পরে- নাড়ী তীব্র ও সরলগতি সম্পন্ন হয়।

(৯)মলরোধ ঘটলে- নাড়ী ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে।

(১০)অস্ত্রাঘাতে ও পতনে- নাড়ীর গতি হংস ও গজ সদৃশ হয়।

(১১)প্রমেহ ও উপদংশে- নাড়ীর গতি মাঝে মাঝে বাধাপ্রাপ্ত হয়।

(১২)পুরাতন রোগে- নাড়ী কখনো স্থুল কখনো দ্রুতগতি হয়ে থাকে।

(১৩)অজীর্ণরোগ- নাড়ী সচরাচর স্থুল হয়ে থাকে।

(১৪)ক্রিমি রোগ- নাড়ী স্থুল, কখনো দ্রুত বা কখনো মৃদুগতি যুক্ত হয়।

(১৫)কলেরায়- নাড়ী দুর্বল ও স্তব্ধ মনে হয়।

(১৬)রক্তস্রাব জনিত কারণে- নাড়ী হালকা, চঞ্চল, ধীরে ও মৃদুগতিযুক্ত হয়ে থাকে।

About Pulse rate and nature in Bengali Laguage(১৭)যক্ষ্মারোগে- নাড়ী মৃদু ও দুর্বল হয়ে থাকে।

(১৮)কাশ রোগে- নাড়ী দ্রুত ও অনিয়মিত ভাবে প্রবাহিত হয়ে থাকে।

(১৯)শ্বাস রোগে- নাড়ী কখনো দ্রুত বা কখনো মৃদু-মন্দ গতি সম্পন্ন হয়ে থাকে।

(২০)বিষমজ্বরে- নাড়ী স্থির ভাবে সঞ্চরমান হয়।

(২১)ত্রিবিধজ্বরে- [বায়ু, পিত্ত কুপিত, কফ প্রভাবিত] নাড়ী ভ্রমরগতি যুক্ত হয়ে থাকে।

(২২)কামজ্বরে- নাড়ীর গতি চঞ্চল হয়।

(২৩)ক্রোধজ্বরে-  নাড়ী দ্রুতগতি সম্পন্ন হয় ।

(২৪)সর্দিরোগে- নাড়ী ধীরে, মৃদুমন্দ বা কখনো চঞ্চল হয়ে থাকে।

(২৫)বাত ও শুল রোগে- নাড়ী অতি বক্রগতি ভাবে হয়।

উপরোক্ত ২৫ বিভিন্ন রকম নাড়ীর গতি ও প্রকৃতি দেওয়া হয়েছে যাহার দ্বারা আমরা বিভিন্ন পরিস্থিতিতে নাড়ীর গতি-প্রকৃতি অনুভব করে নির্দিষ্ট ও সটিক নির্ণয় নিতে পারি আর এটাও জানতে পারি যে আমাদের শরীরে কি চলছে । 

Comment on This News.