Samindranath Tagore (1896-1907) Youngest son of Rabindranath Tagore


Samindranath Thakur (1896-1907)
Youngest son of Rabindranath Thakur

Samindranath Thakur was youngest son of poet. He loved the adoable child. It was said he was very much like his father. The talented child died when he was only eleven. He had gone to Munger with his fiend Saroj to enjoy Puja holidays. A sudden attack of cholera killed him. The poet was deeply shocked to get the news. Much later, in 1932, when his grandson Nitindra died. He wrote to his daughter Mira-
Samindranath Tagore (1896-1907) Youngest son of Rabindranath Tagore
Samindranath Tagore (1896-1907)
Youngest son of Rabindranath Tagore
“…Nobody can escape the ules of the universe… I was on a train the night after Sami died and saw how the sky was flooded with moonlight, how it had not dimmed one bit, how it shown as bright as on all other moonlight nights, I came to realize how everything remained as full as ever, how I was a part of that fullness….let me accept gracefully what happened nd do all that remains to be done for as long as I live……’’

Bangla Bhumi

শমীন্দ্রনাথ ঠাকুর (১৮৯৬-১৯০৭)
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কনিষ্ঠ পুত্র

শমীন্দ্রনাথ ঠাকুর রবীন্দ্রনাথের কনিষ্ঠ পুত্র। তিনি পুত্রকে খুবই স্নেহ করতেন। শোনা যায়, চরিত্রে ও চেহারায় কবির সঙ্গে তাঁর যথেষ্ট মিল ছিল। পূজাবকাশের সময় তাঁর সমবয়সী বন্ধু সরোজচন্দ্রের সাথে মুঙ্গেরে বেড়াতে গিয়েছিলেন এবং সেখানে তাঁর কলেরা হয়, এবং তারপরেই তাঁর মৃত্যু হয়। শমীর মৃত্যুতে কবির মনে নিদারুণ আঘাত লাগে। এই ঘটনার অনেকদিন পর মীরাদেবীর পুত্র নীতিন্দ্রনাথের মৃত্যুতে মীরাদেবীকে স্বান্ত্বনা দিয়ে রবীন্দ্রনাথ ২৮ শে আগস্ট, ১৯৩২
শমীন্দ্রনাথ ঠাকুর (১৮৯৬-১৯০৭) রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কনিষ্ঠ পুত্র
শমীন্দ্রনাথ ঠাকুর (১৮৯৬-১৯০৭)
রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের কনিষ্ঠ পুত্র
সালে যে চিঠি লিখেছিলেন, তারমধ্যে প্রসঙ্গক্রমে শমীন্দ্রনাথের মৃত্যুর কথা স্মরণ করেছেন-“জে রাত্রে শমী গিয়েছিল সে রাত্রে সমস্ত মন দিয়ে বলেছিলুম বিরাট বিশ্বসত্তার মধ্যে তার অবাধ গতি হোক্ আমার শোক তাকে একটুও যেন পিছনে না টানে, ...শমী যে রাতে গেল তার পরের রাত্রে রেলে আসতে আসতে দেখলুম জ্যোৎস্নায় আকাশ ভেসে যাচ্ছে, কোথাও কিছু কম পড়েছে তার লক্ষণ নেই। মন বললে কম পড়েনি- সমস্তর মধ্যে সবই রয়ে গেছে, আমিও তারই মধ্যে, সমস্তর জন্যে আমা কাজও বাকি রইল।